(দিনাজপুর২৪.কম) কলকাতার ইডেন উদ্যানে শুক্রবার শুরু হচ্ছে ভারত-বাংলাদেশ দিন রাতের গোলাপি ক্রিকেট টেস্ট। যে টেস্ট ঘিরে মুখোমুখি দেখা হতে যাচ্ছেন বংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

ইডেনে গোলাপি ক্রিকেট টেস্ট দেখতে উপস্থিত থাকবেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একসঙ্গে বসে গোলাপি ক্রিকেট টেস্ট দেখবেন শেখ হাসিনা ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এ নিয়ে গোটা কলকাতা শহরেই সাজো-সাজো রব। শুধু তাই নয়, খেলার মাঠকে ঘিরেই এখন আবর্তিত হচ্ছে আন্তর্জাতিক রাজনীতিও। থাকছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। উপস্থিত থাকবেন বিশ্বনাথন আনন্দ, লিয়েন্ডার পেজ, সানিয়া মির্জা সহ ২০০০ সালে ভারত-বাংলাদেশ প্রথম টেস্ট ম্যাচ টিমের প্লেয়াররাও।

শুক্রবার ইডেনে একসঙ্গে বসে পিঙ্ক টেস্ট দেখবেন হাসিনা-মমতা। খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একথা জানিয়েছেন। শেখ হাসিনা তাঁকে ফোনও করেছিলেন। মমতার কথায়, ‘কাল ইডেনে খেলা। আমি থাকব। হাসিনা থাকবেন। আমাকে আজকে হাসিনা ফোন করেছিলেন।’ তবে শুধু খেলা দেখাই নয়, মমতার সঙ্গে হাসিনার গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকও হবে। শুক্রবার সন্ধ্যায় শহরের একটি পাঁচতারা হোটেলে সেই বৈঠক হবে। আর এই বৈঠকের দিকেই তাকিয়ে আছে দুদেশের রাজনৈতিক মহল।

সূত্রের খবর, সেই বৈঠকে যেমন উঠে আসতে পারে এনআরসি প্রসঙ্গ, তেমনি উঠে আসার সম্ভাবনা আছে বহুদিনের অমীমাংসিত তিস্তা চুক্তিও। এর আগে দিল্লি এসে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে ফোনে এই বিষয়ে কথা বলেছিলেন হাসিনা। এমনকী প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও এই বিষয়ে হাসিনাকে আশ্বস্ত করেছিলেন। কিন্তু কাজের কাজ এখনও হয়নি। বাংলাদেশে বিষয়টি নিয়ে চাপের মধ্যে রয়েছেন হাসিনা। তাই এবারের বৈঠকে মমতার মন গলানোর চেষ্টা তিনি করবেন বলেই ধারণা রাজনৈতিক মহলের। -ডেস্ক