(দিনাজপুর২৪.কম) আগামী বৃহস্পতিবার সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ডেকেছে জামায়াত ইসলামী। দলটির আমির মকবুল আহমাদসহ আটজনকে গ্রেপ্তার করে ১০ দিনের রিমান্ড দেয়ার প্রতিবাদে এই কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়। তবে হরতাল চলাকালে হাসপাতাল, অ্যাম্বুলেন্স, ফায়ার সার্ভিস, সংবাদপত্রের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট গাড়ি এবং ঔষধের দোকান এর আওতামুক্ত থাকবে। আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।
এসময় দলটি আরও দুই দিনের কর্মসূচিও ঘোষণা করে। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে- আগামীকাল ১১ই অক্টোবর সারা দেশে শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ, ১৩ই অক্টোবর গ্রেপ্তারকৃত নেতৃবৃন্দের মুক্তির জন্য দেশব্যাপী দোয়া। বিজ্ঞপ্তিতে দলটির ভারপ্রাপ্ত আমির ও সাবেক এমপি অধ্যাপক মুজিবুর রহমান বলেন, সরকার বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীসহ সকল বিরোধী দলকে নেতৃত্ব শূণ্য করে দেশকে একদলীয় শাসনের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। তারই অংশ হিসেবে গত ৯ই অক্টোবর রাতে জামায়াতে ইসলামীর নেতাদের অন্যায়ভাবে গেপ্তার করে তাদের বিরুদ্ধে সাজানো মিথ্যা মামলা দিয়ে প্রত্যেককে ১০ দিনের রিমান্ডে নেয়া হয়েছে।
সরকারের এ ধরনের অন্যায়, অগণতান্ত্রিক ও স্বৈরাচারী আচরণের নিন্দা জানানোর কোন ভাষা নেই। তিনি আরও বলেন, শীর্ষ নেতাদের গ্রেপ্তারের পর রিমান্ড দেয়ায় সরকার মানবাধিকার লংঘন করেছে। কোনো সভ্য গণতান্ত্রিক দেশে এ ধরনের অন্যায় আচরণ কখনো কল্পনাও করা যায় না। সরকারের এ অন্যায় ও অমানবিক আচরণে আমরা বিস্মিত ও মর্মাহত। ভারপ্রাপ্ত আমির বলেন, জামায়াতে ইসলামী দেশের একটি আইনানুগ বৈধ রাজনৈতিক দল। অথচ সরকার দীর্ঘ প্রায় ৭ বছর সংগঠনটিকে প্রকাশ্যে কোন সভা-সমাবেশ ও মিছিল করতে না দিয়ে আইনগত এবং সাংবিধানিক মৌলিক অধিকার হরণ করেই চলেছে। -ডেস্ক