উত্তম শর্মা (দিনাজপুর২৪.কম) দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার হাট-বাজারে নতুন পেঁয়াজ এলেও দাম এখনো চড়া। বাজারগুলোতে পেঁয়াজ এখনো চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে। ইতিমধ্যে নতুন পেঁয়াজ বাজারে আসা শুরু করলেও তার প্রভাব নেই। উচ্চদরের কারণে পেঁয়াজের চাহিদাও কমেছে। বীরগঞ্জ পৌর দৈনিক বাজারসহ উপজেলার বিভিন্ন হাট-বাজারে ঘুরে দেখা গেছে,বর্তমানে প্রতি কেজি পুরানো পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ২০০ থেকে ২১০ টাকা দরে। নতুন পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে গড়ে ১৪০ থেকে ১৬০ টাকা দরে। তবু নতুন পেঁয়াজের তুলনায় পুরানো পেঁয়াজের চাহিদা অনেক বেশি। বাজারে সব ধরনের পেঁয়াজ কিনতে আসা ক্রেতাসাধারণরা জানান, নতুন পেঁয়াজ অপরিক্ক। খেতে একদম ভালো লাগে না। ফলে বেশি দাম হলেও পুরানো পেঁয়াজই কিনতে হচ্ছে। তবে ‘সরকার বার বারই বলছে দাম কমবে। কিন্তু বাস্তবে তো আমরা সেটা দেখতে পাচ্ছি না। পেঁয়াজ কিনতে আমাদের খুব কষ্ট হচ্ছে। যেখানে এক কেজি কিনতাম, দাম বেশি হওয়ায় বাধ্য হয় আধা কেজি কনছি। বলাকা মোড়ে কাঁচামাল ও পেঁয়াজ বিক্রেতা কান্ত ঘোষ বলেন, নতুন পেঁয়াজের বিক্রি নেই। বাজারেও খুব কম পরিমাণে আসছে। এক মণ কিনলে তা বিক্রি করতে সারা দিন লাগছে।পুরনো পেঁয়াজের চাহিদা বেশি, কিন্তু সরবরাহ অনেক কম।