(দিনাজপুর২৪.কম) আগামী ৬ মাসের জন্য টেস্ট ক্রিকেট থেকে বিশ্রাম চেয়ে সাকিব আল হাসানের বিসিবিতে আবেদনের খবরটি সবার জানাই। নতুন তথ্য তিনি চাওয়ার সবটুকু বিশ্রাম না পেলেও সাউথ আফ্রিকা সফরের এক টেস্ট থেকে ছুটি পেয়েছেন। সেখানে সাদা পোশাকে দুইটি টেস্ট খেলবে বাংলাদেশ দল।

সোমবার বিকেলে মিরপুরে বাংলাদেশ দল ঘোষণা করবে বিসিবি। তার আগে দুপুরেই সাকিবের না থাকার বিষয়টি জানিয়ে দেয়া হয়। মুশফিকের নেতৃত্বে বাংলাদেশ দল আগামী ১৬ সেপ্টেম্বর বিমানে চাপবে। তাতে থাকছেন না স্বেচ্ছা বিশ্রাম চাওয়া বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব। সাকিবের বিশ্রামের বিষয়টি খোলাসা করে প্রধান বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের প্রধান আকরাম খান।

টেস্ট থেকে সাকিবের অর্ধ-বছরের বিশ্রাম চাওয়ার বিষয়টি প্রথমে সামনে আসে রোববার। কিন্তু দিনভর সাকিব বা বোর্ডের তরফ থেকে চিঠির খবরটি আনুষ্ঠানিকভাবে নিশ্চিত করা হয়নি। পরে রাতে বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের প্রধান আকরাম খান বিশ্রামের বিষয়ে সাকিবের চিঠি দেয়ার কথা গণমাধ্যমে নিশ্চিত করেন। তারপর থেকেই অপেক্ষা ছিল বিসিবির আনুষ্ঠানিক পদক্ষেপ জানার। দেশসেরা পারফর্মারের গুরুত্বপূর্ণ এই ইস্যুতে চুলচেরা আলোচনা সেরেই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত ও আনুষ্ঠানিক বক্তব্য জানাতে আগ্রহী ছিল বোর্ড। আনুষ্ঠানিক সেই বক্তব্যই এলো আকমরাম খানের মাধ্যমে, ‘প্রথম টেস্টে বিশ্রামে সাকিব। তবে দ্বিতীয় টেস্টে সে চাইলে তাকে দলে রাখা হবে।’

তবে সময়টাতে রঙিন পোশাকে খেলা চালিয়ে যেতে আগ্রহী সাকিব। আসছে ১৬ তারিখে সাউথ আফ্রিকায় পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলতে উড়াল দেবে বাংলাদেশ দল। সফরের শুরুর ভাগে থাকছে দুই টেস্ট। এই সফরেই টাইগারদের টি-টুয়েন্টি অধিনায়ক হিসেবে অভিষেক হতে যাচ্ছে সাকিবের।

চলতি বছর ব্যাটে-বলে উড়ছিলেন সাকিব। ৭ টেস্টে ৬৬৫ রান করার পাশাপাশি ২৯টি উইকেটও নিয়েছেন। কদিন আগেই অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টেস্টের ম্যাচসেরা তিনি। আগামী ৬ মাসে বাংলাদেশের আর মাত্র ৪টি টেস্ট খেলার কথা, তাতে সংগ্রহগুলো আরও বাড়িয়ে নেয়ার সুযোগ বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারের সামনে। সেখানে খানিকটা ছেদ টানল স্বেচ্ছা বিশ্রাম।

দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজের পর ডিসেম্বর-জানুয়ারিতে ঘরের মাটিতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ। সেই সিরিজে সাকিব খেলবেন বলেই মনে হচ্ছে। কেননা, বিসিবি শুধু দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজ থেকে এই টাইগার অলরাউন্ডারকে বিশ্রাম দিয়েছে। -ডেস্ক