(দিনাজপুর২৪.কম) বলিউড নায়িকা, প্রথম নারী সুপারস্টার, পদ্মশ্রীভূষণ খেতাবপ্রাপ্ত শ্রীদেবীর মৃত্যুর খবরে শুধু ভারতেই নয়, সারা বিশ্বে কোটি কোটি হৃদয়ে তোলপাড়। তারই প্রতিধ্বনি পাওয়া গেছে বিদেশী মিডিয়াগুলোতে। বলা হয়েছে, তিনি তার ক্যারেক্টার বা চরিত্রের মাধ্যমে কোটি কোটি মানুষের ভালবাসা কুড়িয়েছেন। বৃটিশ ব্রডকাস্টিং করপোরেশন অথবা বিবিসি শ্রীদেবীকে একজন ‘সুপারস্টার’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছে। এতে বলা হয়, এ খেতাবটি বেশির ভাগই দেয়া হয় বলিউডের পুরুষ অভিনেতাদের সম্মান জানাতে। এ নিয়ে বিবিসির সংবাদ শিরোনাম এ রকম- ‘শ্রীদেবী: বলিউড সুপারস্টার ডাইস অ্যাট ৫৪ অব হার্ট এটাক’।

এতে বিবিসি লিখেছে, কোনো পুরুষ অভিনেতার সমর্থন ছাড়াই তিনি বিশাল আকারে বক্স অফিস হিট করেছেন সফলতার সঙ্গে। ভারতে এমন সফল সুপারস্টার নারী অভিনেত্রী যা হাতেগোনা কয়েকজন তার অন্যতম তিনি। তাকে এমনই একজন সুপারস্টার হিসেবে বিবেচনা করা হয়। ওদিকে শ্রীদেবীকে ‘বিলাভড বলিউড একট্রেস’ বা বলিউডের প্রিয়তম অভিনেত্রী হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়। এতে বলা হয়, ১৯৮০ ও ১৯৯০ এর দশকে সবচেয়ে বেশি যেসব ছবি মানুষ দেখেছেন তার অনেকটার কৃতিত্ব তার। শ্রীদেবীকে একজন ‘আইকনিক বলিউড একট্রেস’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছে হলিউড রিপোর্টার। অন্যদিকে বৃটেনের ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস টাইমস তাকে একজন ‘আইকন’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছে। শ্রীদেবীর মৃত্যুতে টুইট করেছেন লন্ডনের মেয়র সাদিক খান। তিনি টুইটে লিখেছেন, সম্প্রতি ভারত সফরের সময় বলিউডের আইকন শ্রীদেবীর সঙ্গে সাক্ষাত হয়েছে। আমি প্রকৃতপক্ষে সেই সাক্ষাতটাকে উপভোগ করেছি। তার মতো একজন ভয়াবহ রকম মেধাবী অভিনেত্রী, পারফরমার ও প্রযোজকের মৃত্যুর খবর আমাকে বেদনাহত করেছে। ওদিকে পাকিস্তানের অনলাইন ডনও শ্রীদেবীকে নিয়ে রিপোর্ট প্রকাশ করেছে। পাকিস্তানের ডেইলি টাইমসের সম্পাদক রাজা আহমেদ রুমি টুইটে লিখেছেন, সুপারস্টার শ্রীদেবীর চলে যাওয়াতে আমি বেদনাহত। তার তো মাত্র ৫৪ বছর বয়স হয়েছিল। তিনি ছিলেন বিস্ময়কর একজন পারফরমার ও স্পর্শকাতর একজন অভিনেত্রী। টরোন্টো ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভালের আর্স্টিসটিক পরিচালক ক্যামেরন বেইলিও শোক জানিয়েছেন। তিনি টুইট করেছেন, ভারতের কিংবদন্তি শ্রীদেবীর চলে যাওয়ার খবর শুনে আমি মর্মাহত। তিনি ২০১২ সালে ‘ইংলিশ ভিংলিশ’ ছবি চলার সময় টরোন্টো সফরে এসেছিলেন। তখন তার উপস্থিতিতে সম্মানিত হয়েছি। তিনি তার ক্যারেক্টারের মাধ্যমে কোটি কোটি মানুষের ভালবাসা কুড়িয়েছেন। -ডেস্ক