(দিনাজপুর২৪.কম) তিন দিন আগেই ফিরে পেয়েছেন হারানো সিংহাসন। উঠে গেছেন ওয়ানডের অলরাউন্ডারদের র‌্যাঙ্কিংয়ের চূড়ায়। এবারে অস্ট্রেলিয়ার বিশ্বকাপজয়ী কিংবদন্তি অধিনায়ক রিকি পন্টিংয়ের প্রশংসায় ভাসলেন সাকিব আল হাসান। বাংলাদেশের তারকা অলরাউন্ডারকে আসন্ন বিশ্বকাপের ‘বিপজ্জনক’ তারকাদের মধ্যে অন্তর্ভুক্ত করে বাকি দলগুলোকে হুঁশিয়ার করে রাখলেন পন্টিং। ৩১ বছর বয়সী সাকিব আল হাসানের ম্যাচ উইনিং দক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন নেই। প্রশ্ন নেই তার অভিজ্ঞতা আর ক্রিকেটীয় সামর্থ্য নিয়েও। নতুন করে সে সব বিষয় উঠে এসেছে পন্টিংয়ের বিশ্লেষণে। পাঁচটি বিশ্বকাপে খেলা বর্তমান অজি সহকারী কোচ ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে আলাদা করে নজর রাখতে বলেছেন সাকিবের ওপর।
গতকাল ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার অফিসিয়াল ওয়েবসাইটের কাছে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে পন্টিং বলেন, ‘আমার মতে বিশ্বকাপে বাংলাদেশের সবচেয়ে “বিপজ্জনক” খেলোয়াড় হবেন সাকিব আল হাসান। সে লম্বা সময় ধরে ক্রিকেট খেলছে। একজন বাঁহাতি মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান যে মাঠের বিভিন্ন দিকে শট খেলে রান করতে পারে। স্কয়ারের দিকে সে খুবই শক্তিশালী। ওর ব্যাট ধরার ধরনটা বলে দেয় যে, পয়েন্টের পেছনে এবং থার্ডম্যানের দিকে শট খেলতে সে পছন্দ করে।’ বোলিং ভাণ্ডারে অস্ত্রের সীমাবদ্ধতা থাকলেও সাকিব নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন বিশ্বের অন্যতম সেরা স্পিনার হিসেবে। তার এই বিস্ময়কর ক্ষমতা চোখ এড়ায়নি ৪৪ বছর বয়সী সাবেক ব্যাটসম্যানের, ‘যখন আপনি চৌকসভাবে এবং বুদ্ধিমত্তা প্রয়োগ করে ক্রিকেট খেলার কথা বলবেন, তখন জেনে রাখুন, বল হাতে সাকিব আসলে সে কাজটাই করে থাকে। সে কখনোই বলকে বেশি টার্ন করাতে পারে না। তবে একজন বাঁহাতি অফ স্পিনার হিসেবে সে দারুণভাবে বলের ডেলিভারিতে গতির পরিবর্তন করতে পারে। আর সে খুবই আগ্রাসী।’ এ প্রসঙ্গে তিনটি বিশ্বকাপজয়ী সাবেক তারকা যোগ করেন, ‘বর্তমান সময়ের অধিকাংশ স্পিনারের চেয়ে সে বাতাসকে অনেক বেশি কাজে লাগায়। এখনকার সাদা বলের ক্রিকেটে অধিকাংশ স্পিনার পিচে বল ফেলে এবং রান স্কোরের সুযোগ দেয় না। সে উল্টোটা করে। সাকিব প্রথম কয়েকটা ডেলিভারিতে ব্যাটসম্যানদের উইকেটে আটকে রাখার চেষ্টা করে  এবং তারপর গতিতে পরিবর্তন আনে। ব্যাটসম্যানরা কখন তাকে মারতে যাবে এই অপেক্ষায় থাকে সে।’ সাকিব ছাড়াও বাংলাদেশের সেরা ওপেনার তামিম ইকবালকে মনে ধরেছে পন্টিংয়ের, ‘সাকিব অনেক বছর ধরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলছে। সে বিগ ব্যাশে খেলেছে। গেল কয়েক বছর ধরে আইপিএলেও পরিচিত মুখ সে। তাই আপনি যদি বাংলাদেশ দলের দিকে লক্ষ্য করেন, তা হলে আমার মনে হয়, সাকিব এবং তামিম ইকবাল বিশ্বকাপে দারুণ কিছু করে দেখাবে।’ -ডেস্ক