মো. নজরুল ইসলাম (দিনাজপুর২৪.কম)  বিরামপুর উপজেলার পল্লীতে পাওনা টাকা চাওয়ায় এক ব্যক্তিকে প্রতিবেশিরা পিটিয়ে হত্যা করে পালিয়ে গেছে। এতে গ্রামবাসি ক্ষিপ্ত হয়ে হত্যাকারীদের বাড়ি-ঘর ও আসবাবপত্র ভেঙ্গে তছনছ করে দিয়েছে।  জানা গেছে, বিরামপুর উপজেলার দুধিয়াগাছি গ্রামের সুলতান আলীর (৫৫) স্ত্রী সালেহা বেগমের নিকট প্রতিবেশী বেলাল হোসেন এক হাজার টাকা হাওলাদ নেয়। সোমবার সেই টাকা ফেরত চাওয়ায় বেলাল রাগান্বিত হয়ে ওঠে। সন্ধায় বুলবুল মাষ্টারের ছেলে বেলাল হোসেন, শাকিল হোসেন, বেলালের স্ত্রী বিথী, বোন হাবিবা এবং মা বিউটি বেগম লাঠি নিয়ে সুলতান ও সালেহাকে এলোপাথারি পেটাতে থাকে। এতে সুলতান ও সালেহার মাথা ফেটে দু’জনে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। লোকজন তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিলে দিনাজপুর একটি বেসরকারি হাসপাতালে রাত ১টার দিকে সুলতানের মৃত্যু ঘটে। সুলতান ঐ গ্রামের সদর আলী পুত্র। অপর আহত সালেহা বেগম দিনাজপুর হাসপাতালে সংকটাপন্ন অবস্থায় রয়েছে বলে স্বজনরা জানিয়েছে। এ ঘটনায় গ্রামবাসী ক্ষিপ্ত হয়ে হত্যাকারীদের বাড়িঘর ও বাড়ির সকল আসবাবপত্র ভেঙ্গে ফেলে দিয়েছে।
বিরামপুর থানার ওসি মনিরুজ্জামান, নিহতের স্বজনরা থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে।