আতিউর রহমান (দিনাজপুর২৪.কম)  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর জাবেদ আলী বিরল প্রেস ক্লাবে জর্জিস আলী দিং এর বিরুদ্ধে পাল্টা সাংবাদিক সম্মেলন করেছে।  বিরল উপজেলার রামপুর গ্রামের মৃতঃ ছলিমদ্দীনের পুত্র জাবেদ আলী সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলেন, গত ১৯ সেপ্টেম্বর তাকে জড়িয়ে একই গ্রামের মৃতঃ বাহারুল্যাহ এর পুত্র জর্জিস আলী সাংবাদিক সম্মেলনে উল্লেখ করেছেন, ২০০২ সালে ৩/৯০ নং ঘোষনা মূলক ডিগ্রীর মামলায় রায় পেয়ে ভোগ দখল করিয়া বসবাস করিয়া আসিতেছে। যার জেল নং ১০৯, রামপুর মৌজার সিএস খতিয়ান নং ১০ ও এসএ খতিয়া নং ৩৩, দাগ নং ৬০০, রকম ডাঙ্গা, পরিমান ১৩৭ শতকের মধ্যে ৭০ শতক। তা স¤পূর্ণ মিথ্যা বানোয়াট। প্রকৃত ঘটনা হলো, উক্ত সম্পত্তিকে কেন্দ্র করিয়া ১৯৮৩ সালে ৩/৯০ বেনামী ঘোষনা মুলক ডিক্রীর মামলা হয়। ২০০২ সালে উক্ত মামলার রায় আমার বাবা ছলিমউদ্দীনের পক্ষে রায় ও ডিগ্রী ঘোষিত হয়। আমার বাবা ছলিমউদ্দীন শুধুমাত্র জর্জিস আলীর বাবা বাহার উদ্দীনের নাম খতিয়ানে আন্তভুক্ত করায় জর্জিস আলী দিংরা স¤পূর্ণ সম্পত্তি অবৈধভাবে দাবি করিয়া মিথ্যা তথ্য উপস্থাপন করিয়া সাংবাদিক সম্মেলন করেছে। উক্ত খতিয়ান ও দাগের ১৩৭ শতকের মধ্যে সাড়ে ৫২ শতক জমি রায়ের পর হইতে আমাদের ভোগ দখল আছে। জাবেদ আলী দিংরা অণ্যের সম্পত্তি অবৈধভাবে দখল কিংবা ভূমি জবর দখল কারার কোন চেষ্টা করেন নাই বলেও লিখিত বক্তব্যে উল্লেখ করেছেন। এ সময় বেলাল হোসেন, রইসুল আলম, আব্দুল খালেক বকুল, মাসুদ উপস্থিত ছিলেন।