সংগৃহীত

(দিনাজপুর২৪.কম) বাংলাদেশ বিমানের উড়োজাহাজ বিজি-১৪৭ ছিনতাই চেষ্টাকারী যুবকের হাতের অস্ত্রটি খেলনা পিস্তল ছিল। চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের কমিশনার মোহাম্মদ মাহবুবার রহমান সাংবাদিকদের এমন তথ্যই দিয়েছেন।

তিনি বলেন, তার কাছে যে অস্ত্রটি পাওয়া গেছে এটা ভুয়া, খেলনা পিস্তল।

পরবর্তীতে বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলীও রাতে এক টেলিভিশন অনুষ্ঠানে যুক্ত হয়ে একই কথা বলেছেন। তিনিও বলেছেন, ওই পিস্তলটি ছিল খেলনা।

বিমান ছিনতাই চেষ্টাকারী মাহাদী (২৬) সেনাবাহিনীসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে গোলাগুলিতে নিহত হয়েছেন। তবে টিকিটে তার নাম মাজিদুল বলে জানা গেছে।

এর আগে গোলাগুলিতে নিহত হওয়ার সময় তার নাম মাহাদী বলে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চট্টগ্রাম ২৪ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি মেজর জেনারেল মতিউর রহমান।

রোববার রাত পৌনে ৯টার দিকে সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়।

এর আগে আইএসপিআর জানায়, অভিযানের পর ছিনতাইকারীকে আহত অবস্থায় আটক করা হয়েছে। পরিস্থিতি সেনাবাহিনীর নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে আরও জানানো হয়, বিমানের ভেতরে অভিযান চালানোর সময় ওই ব্যক্তিকে আত্মসমর্পণ করতে বলা হয় কিন্তু সে অস্বীকৃতি জানালে গুলি চালানো হয়। পরে তার মৃত্যু হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে আরও বলা হয়, বিমানে ক্রুসহ ১৪৮ জন যাত্রী ছিলেন। তারা সবাই নিরাপদে বের হয়ে এসেছেন।

রাত ৮টার দিকে সিভিল অ্যাভিয়েশনের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, সেনাবাহিনীসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ৭টা ১৭ মিনিটে অভিযান পরিচালনা করে। এটি শেষ হয় ৭টা ২৫ মিনিটে। এ সময় ছিনতাই চেষ্টাকারীকে আহত অবস্থায় আটক করা হয়।-ডেস্ক