স্টাফ রিপোর্টার (দিনাজপুর২৪.কম) দিনাজপুরের ১৩টি উপজেলায় দ্বিতীয় ধাপে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে সদর উপজেলায় আওয়ামীলীগের মোঃ ইমদাদ সরকার, পার্বতীপুর উপজেলায় আওয়ামীলীগের মোঃ হাফিজুর রহমান প্রামানিক, ঘোড়াঘাট উপজেলায় আওয়ামীলীগের আব্দুর রাফে খন্দকার শাহানশাহ ও হাকিমপুরে আওয়ামীলীগের হারুন অর রশিদ বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। আজ বৃহস্পতিবার বিভিন্ন সংগঠন ও ব্যক্তি তাদেরকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান।
বীরগঞ্জ উপজেলা ঃ বীরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী হয়ে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন দিনাজপুর-১ (বীরগঞ্জ-কাহারোল) আসনের সাবেক এম পি মোঃ আমিনুল ইসলাম। বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে আওয়ামীলীগ নেতা সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আখতারুল ইসলাম চৌধুরী বাবুল, আওয়ামীলীগ নেতা সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান দীনেশ চন্দ্র মহন্ত।
কাহারোল উপজেলাঃ আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী হয়ে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি একেএম ফারুক। বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে আওয়ামীলীগ নেতা গোপেশ চন্দ্র রায়, সাবেক এমপি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল মালেক সরকার।
বিরল উপজেলা ঃ এই উপজেলায় আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী হয়ে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক একেএম মোস্তাফিজুর রহমান বাবু। জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন এ্যাডঃ সুধীর চন্দ্র শীল ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মোকাররম হোসেন।
বোচাগঞ্জ উপজেলাঃ এই উপজেলায় আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী হয়ে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আফসার আলী। বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে আওয়ামীলীগ নেতা ও বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান ফরহাদ হাসান চৌধুরী ইগলু ও জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন এ্যাড,জুলফিকার হোসেন ।
ফুলবাড়ি উপজেলাঃ আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আতাউর রহমান মিল্টন। এখনে ওয়ার্কাস পাটির শফিকুল ইসলাম শিকদার ও স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সুদর্শন পালিত ।
চিরিরবন্দর উপজেলাঃ আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আহসানুল হক মুকুল ও বিদ্রোহী প্রার্থী হয়ে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন জেলা আওয়ামীলীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক তারিকুল ইসলাম তারিক।
খানসামা উপজেলাঃ আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সফিউল আযম চৌধুরী লায়ন। বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে আওয়ামীলীগ নেতা আবু হাতেম, সদ্য আওয়ামীলীগে যোগদানকারী বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান শহীদুজ্জামান শাহ ও জাতীয় পার্টি প্রার্থী মোনাজাত হোসেন চৌধুরী ।
নবাবগঞ্জ উপজেলাঃ আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আতাউর রহমান। বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাফিজুর রহমান ও সদস্য নিজামুল হাসান শিবির, বিকল্পধারা মনোনীত প্রার্থী মোঃ শাহ আলম।
বিরামপুর উপজেলাঃ আওয়ামীলীগে যুগ্ম সম্পাদক পারেভেজ কবির। বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক খায়রুল আলম রাজু ,মোঃ আনোয়ার হোসেন মিয়া ।
তবে এবারের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিরোধী দল না থাকায় ভোটের আগেই আওয়ামী লীগের ৪ জন প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বদ্বীতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। আগামীতে সারাদেশের ন্যায় দিনাজপুরে ভোটারদের উপস্থিতি কেমন থাকবে এ নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে। নির্বাচনে বোঝা যাবে ভোটার কেমন হয়।