স্টাফ রিপোর্টার (দিনাজপুর২৪.কম)  সারা দেশের ন্যায় দিনাজপুরেও মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস-২০১৮ পালিত হয়েছে। বিনম্র শ্রদ্ধা আর ভালবাসায় জেলাবাসি স্মরন করেছে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের।
২৬ মার্চ উপলক্ষে সরকারী-বেসরকারী প্রতিষ্ঠান, রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন বিস্তারিত কর্মসূচী গ্রহণ করে। এসব কর্মসুচীর মধ্যে ছিল শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ, স্কুল-কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের বর্ণাঢ্য কুচকাওয়াজ, আলোচনা সভা, রক্তদান কর্মসূচী, ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প, মসজিদে মসজিদে বিশেষ মুনাজাত ও অন্যান্য উপসনালয়ে প্রার্থনা, হাসপাতাল-কারাগার, কেন্দ্রসমূহে ও শিশু সদনে উন্নতমানের খাবার পরিবেশন ইত্যাদি।
২৬ মার্চ সোমবার দিবসের শুরুতে সকাল ৬টায় দিনাজপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে অবস্থিত শহীদ স্মতিস্তম্ভে পুস্পাঞ্জলি অর্পণের মাধ্যমে শহীদদের প্রতি প্রথমে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি। এর পর জেলা প্রশাসক ড. আ ন ম আব্দুছ ছবুর ও পুলিশ সুপার মো. হামিদুল আলম।
দিনাজপুর জেলা প্রশাসনের আয়োজনে গোর-এ-শহীদ বড়মাঠে বর্ণাঢ্য কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত হয়। কুচকাওয়াজে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রীরা বিভিন্ন শারিরীক কসরত প্রদর্শন করে।

হাবিপ্রবি : যথাযোগ্য মর্যাদা ও দিনব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচি পালনের মধ্যদিয়ে সোমবার হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (হাবিপ্রবি) মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস-২০১৮ উদযাপিত হয়েছে।
সকাল ৮ টায় পুরাতন প্রশাসনিক ভবনের সম্মুখে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও সমবেত কন্ঠে জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা হয়। পরে ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মু. আবুল কাসেমের নেতৃত্বে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী, ও ছাত্র-ছাত্রীেেদর নিয়ে স্বাধীনতা দিবসের র‌্যালী বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করে।
সকাল সাড়ে ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মু. আবুল কাসেম বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুস্পস্তবক অর্পণ করে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান। ক্রমান্বয়ে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা, ছাত্রলীগ হাবিপ্রবি শাখার নেতৃবৃন্দ, কর্মচারি ও হাবিপ্রবি স্কুলের শিক্ষক শিক্ষার্থীরা। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সংগঠন পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান।