(দিনাজপুর২৪.কম) দেখতে দেখতে কেটে গেল আরেকটি বছর। দিনপঞ্জিকার শেষ পাতাটি উল্টে যাবে আজ। বর্ষবরণের আবাহন রেখে কুয়াশামোড়া সূর্য বিদায় নিলো মহাকালের যাত্রায়। সময় হলো খ্রিস্টীয় ২০১৯ সালকে বিদায় বলার। খ্রিস্টীয় নতুন বছর ২০২০ সালকে স্বাগত জানাতে প্রস্তুত গোটা বিশ্ববাসী।

নতুন বছরে নতুন আশায় বুক বেঁধে নতুন করে পথ চলার ব্রত। কিন্তু, অতীতের বীজেই যে ভবিষ্যতের বৃক্ষ- সে তো আর নতুন নয়। তাই পিছনে ফিরতেই হয়। দেখে নিতে হয়। কেমন গেল, কী মিলল, কী হারাল। আগামীতেই বা কী হবে। এই পিছিয়ে দেখাটা পেছনে যাওয়া নয়, আসলে সামনে এগোনোর তাগিদেই।

বছরের শুরুতে চুড়িহাট্টার অগ্নিকাণ্ড ৯ বছর আগের নিমতলীর অগ্নিকাণ্ডের স্মৃতি ফিরিয়ে এনেছিল। বনানীর এফআর টাওয়ার আগুনে পুড়ে যায়। বছরের শেষে কেরানীগঞ্জে অগ্নিকাণ্ডের ক্ষয়ক্ষতিও ছিল ব্যাপক। নতুন আইন করেও শৃঙ্খলা ফেরেনি সড়কে। দুর্ঘটনা বন্ধ হয়নি। এ বছর কয়েকটি ট্রেন দুর্ঘটনাও ঘটে। প্রাকৃতিক দুর্যোগের মধ্যে বন্যা এবার হলেও তার মাত্রা ব্যাপক হয়নি। আঘাত হানে সামুদ্রিক ঝড় ফণী ও বুলবুল।

অর্থনীতির গতি যেন অনেকটাই থমকে গেছে। খেলাপি ঋণ নিয়ে ব্যাংক খাত আলোচনায়। পুঁজিবাজারও পতনের ধারা থেকে বেরিয়ে আসতে পারেনি।

বছরজুড়ে অনেকটাই নিস্তরঙ্গ ছিল দেশের রাজনৈতিক অঙ্গন। নিজেদের ঘর গোছাতে ব্যস্ত ছিল দলগুলো। টানা ১০ বছর ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ দুর্নীতি দমনে জোর দেয়ার কথা বললেও বালিশকাণ্ডের মতো নতুন দুর্নীতির খবর ছিল বছরজুড়েই আলোচিত। দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযানও শুরু হয়েছে এ বছর। লক্ষ্যহীন রাজনীতির কারণে বিএনপিসহ বিরোধী জোটে সংকট প্রকট হয়েছে।

বছরজুড়েই বাজার ভুগিয়েছে ভোক্তাদের। ৩০ টাকার পেঁয়াজ ২৫০ টাকায় উঠে নজিরবিহীন এক পরিস্থিতি তৈরি করে। লবন গুজবে টালমাটাল হয়ে ওঠে সমাজ।

উচ্চশিক্ষায় অস্থিরতা ছিল বছরজুড়ে। দীর্ঘ সময়ের জন্য অচল ছিল একাধিক পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়। ২৮ বছর পর গত মার্চে অনুষ্ঠিত হয় ডাকসু নির্বাচন। আর ১০ বছর পর নতুন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত হয় এ বছরই।

২০১৮ সালের মতো ২০১৯ সালেও রোহিঙ্গা সংকট ভুগিয়েছে বাংলাদেশকে। মানবিক সংকট হিসেবে শুরু হলেও পর্যায়ক্রমে  ভূ-রাজনৈতিক সংকটে রূপ নিচ্ছে রোহিঙ্গা ইস্যু।

জাতিসংঘের সর্বোচ্চ বিচারিক সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল কোর্ট অব জাস্টিস বা আন্তর্জাতিক বিচার আদালতে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে মামলা করেছে গাম্বিয়া।

ফেনীর সোনাগাজীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফি হত্যা মামলার দ্রুত বিচার বড় একটি উদাহরণ সৃষ্টি করেছে।

এদিকে বছরের শেষ সূর্যাস্ত ও নতুন বছরের প্রথম প্রহরের সূর্যোদয়কে স্বাগত জানাতে পর্যটকদের পদচারণায় মুখরিত সাগরকন্যা কুয়াকাটা। প্রতি বছরের মতো এবারও পর্যটকদের ভিড়ে মুখর সমুদ্র সৈকত।

পাশাপাশি দর্শনীয় স্থানগুলোতে রয়েছে পর্যটকদের উপচেপড়া ভিড়। খালি নেই হোটেল-মোটেল-কটেজের কক্ষ। পর্যটকদের আতিথেয়তায় ব্যস্ত সময় পার করছেন ট্যুরিস্ট পুলিশ, নৌ-পুলিশ ও পর্যটন সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরা। পর্যটকদের পদচারণা এরই মধ্যে বুঝিয়ে দিয়েছে নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে উৎসবের আমেজের কোনো কমতি নেই। -ডেস্ক