(দিনাজপুর২৪.কম)  জয়পুরহাটে বাংলাদেশের ভেতরে ঢুকে বিএসএফ গুলি চালিয়ে একজনকে হত্যা এবং ৪ জনকে আহত করার ঘটনায় গভীর উদ্বেগ ও শোক প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী। শনিবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল ডা. শফিকুর রহমান বলেন, আমরা গভীর পরিতাপের সাথে লক্ষ্য করছি যে, বিএসএফ যখন তখন বাংলাদেশের নিরীহ জনগণকে পাখির মত গুলি করে হত্যা ও আহত করছে।
তিনি বলেন, দফায় দফায় দুই দেশের সীমান্ত রক্ষীবাহিনী এবং দুই দেশের কর্তৃপক্ষের মধ্যে বহু বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রতিবারই ভারত সীমান্তহত্যা বন্ধের আশ্বাস দিয়ে থাকে। তারপরেও বাংলাদেশের সীমান্তে বিএসএফ কর্তৃক বাংলাদেশি হত্যার এই নৃশংসতা থামছে না।
শুক্রবার ভারতীয় বিএসএফ জয়পুরহাট সদর উপজেলা সীমান্তে বাংলাদেশি কৃষক সায়েম উদ্দিনকে গুলি করে হত্যা এবং অপর ৪ জনকে আহত করেছে। আমরা এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।
বিজিবির কর্মকাণ্ডে প্রশ্ন তুলে বিবৃতিতে বলা হয়, বিজিবির কাজ কী শুধু সরকারের প্রতিপক্ষ রাজনৈতিক দলসমূহের নেতা-কর্মীদের উপর কাপুরুষোচিত হামলা, দমন-পীড়ন ও নির্যাতন চালানো?
সরকারের সমালোচনা করে জামায়াত সেক্রেটারি বলেন, যেহেতু এই সরকার জনগণের দ্বারা নির্বাচিত নয়, সে কারণে এই সরকারের পক্ষে জনগণের সমস্যা সমাধান করাও সম্ভব নয়। তাই এই সরকারের কর্তব্য নিরপেক্ষ, নির্দলীয় সরকারের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করে ক্ষমতা থেকে সরে দাঁড়ানো।
বিবৃতিতে ডা. শফিক বিএসএফের গুলিতে নিহত জয়পুরহাট সদর উপজেলার কৃষক সায়েম উদ্দিনের রুহের মাগফিরাত কামনা করেন এবং হতাহতদের সকলকে উপযু্ক্ত ক্ষতিপূরণ প্রদান এবং আহতদের সুচিকিৎসার ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃক্ষের প্রতি আহ্বান জানান। -ডেস্ক রিপোর্ট