(দিনাজপুর২৪.কম) বিএনপির নেতৃত্বকে কবর দিতেই ২০০৪ সালের সংঘটিত ২১ আগস্টের ঘটনা ‘১/১১’র রি-অ্যারেজমেন্ট’ বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বরচন্দ্র রায়। গতকাল এক আলোচনাসভায় তিনি আরও বলেন, ১/১১’র ফলে লাভবান হয়েছে শেখ হাসিনা এবং আওয়ামী লীগ। নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিচতলায় ঢাকা জেলা

বিএনপির উদ্যোগে দলের ভাইস চেয়ারম্যান সদ্য প্রয়াত আবদুল মান্নানের স্মরণে এ আলোচনাসভা ও মিলাদ মাহফিল হয়।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির এই নেতা আরও বলেন, ২১ আগস্টের ঘটনাটা হাসিনাকে (বর্তমান প্রধানমন্ত্রী, তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেতা) মারার বড় চক্রান্ত -এখানেই সীমাবদ্ধ ছিল না। এ চক্রান্ত ছিল সেদিন জাতীয়তাবাদী শক্তির নেতৃত্বের কবর দেওয়া। এটা একটা রাজনৈতিক অস্ত্র হিসেবে বিএনপির ওপর প্রয়োগ করা হয়েছে।

জেলা বিএনপির সভাপতি দেওয়ান মো. সালাহউদ্দিনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক খন্দকার আবু আশফাকের পরিচালনায় আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, কেন্দ্রীয় নেতা আবদুস সালাম আজাদ, নিপুণ রায় চৌধুরী, ধামরাই উপজেলা চেয়ারম্যান তমিজউদ্দিন আহমেদ ও প্রয়াত নেতার একমাত্র মেয়ে মেহনাজ মান্নান প্রমুখ।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, আমরা ২১ আগস্টের ঘটনাকে অবশ্যই বলি- এটা মর্মান্তিক। যারাই করুক তারা দুরাচার, দুর্বৃত্ত। ওই ঘটনার সঙ্গে বিএনপিকে ও তারেক রহমানকে জড়ালেই বোঝা যায়- এটা একটা মাস্টারপ্ল্যান। এ প্ল্যান শেখ হাসিনা জানতেন। যদি সত্যিকার অর্থে একটা গণতান্ত্রিক সরকার আসে, একটা সুষ্ঠু তদন্তের প্রক্রিয়া অব্যাহত রাখা যায়- তখনই বোঝা যাবে কে দায়ী। -ডেস্ক