(দিনাজপুর২৪.কম) বাংলাদেশে বিমানে যাত্রায়াত খরচ বৃদ্ধি করা হয়েছে। ‘বিমানবন্দর উন্নয়ন এবং নিরাপত্তা ফি’ নামে আজ রোববার থেকে এই বর্ধিত ফি নেয়া হচ্ছে। আভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক উভয় রুটে ভ্রমণের ক্ষেত্রে আলাদা হারে এই ফি নেয়া হচ্ছে। বেসামরিক বিমান চলাচল ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

এক্ষেত্রে বাংলাদেশের যে কোন বিমানবন্দর দিয়ে সার্ক-ভুক্ত দেশগুলোতে যাওয়ার ক্ষেত্রে বিমানবন্দর উন্নয়ন ফি ৫ ডলার এবং নিরাপত্তা ফি ৬ ডলার দিতে হবে। আবার দেশে ফিরে আসার ক্ষেত্রেও সমপরিমাণ অর্থ দিতে হবে। অন্যদিকে সার্কভূক্ত দেশের বাইরে ভিন্ন কোন দেশে গেলে যাওয়া এবং আসার ক্ষেত্রে একজন যাত্রীকে ৪০ ডলার দিতে হবে। শুধু বিদেশে আসা-যাওয়া করা যাত্রীদের ক্ষেত্রেই নয়, দেশের ভেতরে অর্থ্যাৎ অভ্যন্তরীন রুটের যাত্রীদেরকেও বিমানবন্দর উন্নয়ন এবং নিরাপত্তা ফি দিতে হবে। দেশের অভ্যন্তরে একবার বিমানবন্দর ব্যবহার করলে দিতে হবে ১৭০ টাকা।

এ ব্যাপারে বিমান ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মহিবুল হক জানান, বাংলাদেশের বিমান বন্দরগুলো পরিচালনার ক্ষেত্রে প্রতিবছর প্রায় ৪০০০ কোটি টাকা খরচ হয়। এ পরিচালনা ব্যয় মেটানোর জন্যই এ ফি নেয়া হচ্ছে। এতে প্রতিবছর সরকার ৬০০ কোটি টাকার মতো পাবে বলে আশা করেন তিনি। পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে এ ধরণের ফি নেয়া হয় দাবি করে মহিবুল হক বলেন, এই রিজিওনের ভেতরে আমরা সবচেয়ে বিলম্বে এটা কার্যকর করছি এবং সবচেয়ে কম অর্থ নিচ্ছি। -ডেস্ক