(দিনাজপুর২৪.কম) প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় বলেছেন, বাংলাদেশ বিশ্বকে দেখিয়ে দিয়েছে- আমরা পারি, নিজেরাই পারি; দেশবাসীকে এগিয়ে নিতে পারি। তিনি বলেন, আমরা বিশ্ব ব্যাংকের পরিসংখ্যানের অপেক্ষায় ছিলাম। কিন্তু আমরা শুনেছিলাম যে, হ্যাঁ আমরা পরিণত হব। আগে থেকেই খবর পেয়েছি, আমাদের পরিসংখ্যানও সবদিক দিয়েই পৌঁছে গেছি। অফিশিয়াল ঘোষণাটা বাকি ছিল। তবে লক্ষ্যের ৬ বছর আগেই নিম্ন মধ্যম আয়ের দেশের কাতারে উন্নীত হয়ে বাংলাদেশ বিশ্বকে দেখিয়ে দিয়েছে- এ দেশের মানুষ নিজেরাই নিজেদের এগিয়ে নিতে পারে।
আজ শুক্রবার বিকালে রাজধানীর কেআইবি মিলনায়তনে ‘লেটস টক’ নামের এক অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় ওই অনুষ্ঠানে দুই শতাধিক তরুণ উপস্থিত ছিলেন। এ বিষয়টি নিয়েই ‘লেটস টক ইউথ সজীব ওয়াজেদ জয় অন বাংলাদেশ এচিভিং মিডল ইনকাম স্ট্যাটাস’ শীর্ষক এ আলোচনার আয়োজন করে সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশন (সিআরআই)।
আওয়ামী লীগ সরকারের সময়ে নেয়া বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা বলেন, আমরাও আশ্চর্য হয়েছি। এটা (৬ বছর আগে এ অর্জনে) একটা চ্যালেঞ্জ ছিল। বিশ্বের সবচয়ে দরিদ্র দেশ থেকে আজ আমরা নিম্ন মধ্যম আয়ের দেশ। এ অর্জনের কৃতিত্ব আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনাকেই দেন তিনি। তিনি বলেন, এসব কিছুর পরিকল্পনা ছিল একজনের। গত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে জেলে বসেই তিনি সব কিছু প্ল্যান করেছিলেন। সব উনার পরিকল্পনা ছিল। সুযোগ পেয়ে ক্ষমতায় গিয়ে তিনি তা বাস্তবায়ন করেছেন। তিনি শেখ হাসিনা।
জয় বলেন, আমরা জানতাম যে এটা অর্জন করব, শুনেছি এটা হবে। শুধু আনুষ্ঠানিক ঘোষণার বাকি ছিল। ওয়াদা ছিল ২০২১ সালের মধ্যে নিম্ন মধ্যম আয়ের দেশে পৌঁছাব। এর ছয় বছর আগে সেখানে পৌঁছে গেছি। এ জন্য গর্বিত। তিনি বলেন, চলতি মাসের শুরুতে বিশ্বব্যাংকের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়, মাথাপিছু আয়ের ভিত্তিতে তাদের সূচকে বাংলাদেশকে এক ধাপ এগিয়ে নিম্ন মধ্যম আয়ের দেশের কাতারে এসেছে। শেখ হাসিনা নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকার ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত করার লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করলেও সেই লক্ষ্য অর্জিত হল ৬ বছর আগেই। -(ডেস্ক)