(দিনাজপুর২৪.কম) বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের নতুন ধরনের শনাক্তের কথা শোনা যাচ্ছে। এর সঙ্গে যুক্তরাজ্যের নতুন ধরণটির কিছুটা মিল রয়েছে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদ।

করোনাভাইরাসের নতুন একটি মিউটেশন যুক্তরাজ্যে ব্যাপক হারে ছড়িয়ে পড়েছে। করোনার এই ধরণটির সংক্রমণের হার অন্যান্যগুলোর তুলনায় ৭০ ভাগ বেশি বলে জানা গেছে গবেষণায়। ফলে দেশটির সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করেছে বিশ্বের অনেক দেশ। বাংলাদেশও যুক্তরাজ্য থেকে আসা মানুষদের ওপর আরোপ করেছে বিধিনিষেধ।

বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদের জিনোম সিকোয়েন্স ল্যাবেও করোনার বিভিন্ন মিউটেশন নিয়ে গবেষণা করছেন বাংলাদেশের বিজ্ঞানীরা। তাদের তরফ থেকে বৃহস্পতিবার (২৪ ডিসেম্বর) জানানো হয় করোনার ৫টি নতুন মিউটেশন বা ধরণ তারা আবিষ্কার করেছেন নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহেই। যে নমুনা তারা সংগ্রহ করেছিলেন অক্টোবর মাসে। এর মধ্যে একটি মিউটেশনের সঙ্গে কিছুটা মিল রয়েছে যুক্তরাজ্যে ছড়িয়ে পড়া নতুন ধরণের। তবে এটি বাংলাদেশে তেমন কোন প্রভাব ফেলেনি বলে জানান বিজ্ঞানীরা।

এ বিষয়ে এখনই আনুষ্ঠানিক কোন ঘোষণা দিতে রাজি নয় বিসিএসআইআর। প্রতিষ্ঠানটির জনসংযোগ কর্মকর্তা আবদুর রাজ্জাক জানিয়েছেন, নতুন মিউটেশনটি বাংলাদেশে তেমন কোন প্রভাব ফেলেনি। ভাইরাসের নতুন এ ধরনটি নিয়ে আরো গবেষণা চলছে। ফলাফল পেলেই তা বিস্তারিত জানানো হবে।

তিনি বলেন, আপাতত যে অবস্থায় আমরা আছি, পূর্ণাঙ্গ ফলাফর না আসা পর্যন্ত আমরা আপনাদের জানাতে পারছিনা। আমরা গবেষণায় অনেক দূর এগিয়ে গিয়েছি।

এর আগেও বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের বেশ কয়েকটি নতুন মিউটেশন হয়েছে বলে জানিয়েছিল বাংলাদেশে বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদ।