(দিনাজপুর২৪.কম) দক্ষিণ আফ্রিকার টেস্ট অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসির পর এবার ওয়ানডে অধিনায়ক এবি ডি ভিলিয়ার্সের বিরুদ্ধে বল টেম্পারিংয়ের অভিযোগ উঠেছে। তবে আম্পায়ারদের তোলা এমন অভিযোগে ব্যাপক হতাশা প্রকাশ করেছেন এই প্রোটিয়া ব্যাটসম্যান।

সাউদাম্পটনে শনিবার ইংল্যান্ড-দক্ষিণ আফ্রিকা দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ইংল্যান্ডের ইনিংসের ৩৩ ও ৩৪তম ওভারের মাঝামাঝি সময়ে ঘটে এমন ঘটনা। স্পিনার কেশব মহারাজ ৩৪তম ওভার শুরুর আগে দুই অন ফিল্ড আম্পায়ার রব বেইলি ও ক্রিস গ্যাফানি বল পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত নেন। তারা ডি ভিলিয়ার্সকে ডেকে জানান, বলের আকৃতি পরিবর্তিত হয়েছে। এ নিয়ে আম্পায়ার ও প্রোটিয়া অধিনায়কের মধ্যে খানিকটা কথা কাটাকাটিও হয়। যদিও শেষ পর্যন্ত বল পরিবর্তন করেননি আম্পায়াররা।

এ ব্যাপারে অধিনায়ক বলেছেন, ‘আম্পায়াররা জানিয়েছিল বলের আকৃতি পরিবর্তিত হয়েছে। তখন মনে হচ্ছিল, যেন আমরা দায়ী। ব্যাপারটা নিয়ে আমি খানিকটা হতাশ ছিলাম। বুঝতে পারছি না, আমি কী বলব, আমি হতাশ। বিষয়টি এখন শেষ হয়ে গেছে, আমাদের জরিমানা বা ওরকম কিছুও আর করা হয়নি। ’

তবে এই অভিযোগে কাউকে কোনো শাস্তি দেয়া হয়নি। নিজেদের নির্দোষ প্রমাণ হওয়ায় স্বস্তি নিয়ে ডি ভিলিয়ার্স বলেন, ‘আমি আম্পায়ারদের বলেছিলাম আমরা বলের আকৃতি পরিবর্তন করার মতো কিছু করিনি। মহারাজ ওই প্রান্ত থেকে পাঁচ ওভার বল করেছিল, স্পিনাররা কয়েক ওভার বল করলে সাধারণত বল ওরকম হয়ে যায়। আমি এই বিষয়ে আমার মতামত ব্যক্ত করেছি। দুর্ভাগ্যজনকভাবে আম্পায়াররা অন্য কিছু ভেবেছিলেন। তবে জরিমানা বা সতর্ক করার মতো কিছু ঘটেনি। এর অর্থ আমরা নির্দোষ ছিলাম। ’

উল্লেখ্য, এর আগে ভারতের বিপক্ষে ম্যাচে গত নভেম্বরে হোবার্ট টেস্টে চুইংগামের লালা মাখিয়ে বল টেম্পারিংয়ের অভিযোগ উঠেছিল দক্ষিণ আফ্রিকার টেস্ট অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসির বিরুদ্ধে। সে অভিযোগে তাকে শাস্তিও পেতে হয়েছিল। -ডেস্ক

সূত্র: এন্ডিটিভি