(দিনাজপুর২৪.কম) বরিশাল জেলার চিহ্নিত ১১জন মাদক ব্যবসায়ী স্বেচ্ছায় পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ করেছেন। অন্ধকার পথ ছেড়ে আলোর পথে আসার জন্য শনিবার সকালে বরিশাল জেলা পুলিশ লাইনসের হল রুমে পুলিশ কর্মকর্তাদের কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে আত্মসমর্পণ করেন তারা। অনুষ্ঠানে পুলিশের পক্ষ থেকে ফুল এবং বিশেষ পুরস্কার দিয়ে আত্মসমর্পণকারীদের বরণ করা হয়।

এ উপলক্ষে আত্মসমর্পণের মাধ্যমে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসা মাদক ব্যবসায়ী/সেবীদের সাথে এক মতবিনিময় সভার আয়োজন করে জেলা পুলিশ।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন রেঞ্জ ডিআইজি মো. শফিকুল ইসলাম। পুলিশ সুপার মো. সাইফুল ইসলামের সভাপতিত্বে আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আব্দুর রাকিব।

আত্মসমর্পণকারীরা হলেন- জেলার বাকেরগঞ্জের শাহিন হাওলাদার, বাবুগঞ্জের মিরাজ হোসেন, উজিরপুরের মনির হোসেন সিকদার ও মিরাজ হোসেন, আগৈলঝাড়ার রুবেল ফকির, মেহেন্দিগঞ্জের পারভেজ হাসান, হিজলার নাজমুল হোসেন, বানারীপাড়ার রাজু হাওলাদার ও শামীম মৃধা এবং গৌরনদীর কাজী ইব্রাহীম।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ডিআইজি মো. শফিকুল ইসলাম বলেন, কোনো মাদক ব্যবসায়ীর সাথে যেন পুলিশের কোনো ধরনের সখ্যতা না থাকে। কোনোভাবে কোনো মাদক ব্যবসায়ী কিংবা সেবী পুলিশের কাছ থেকে যেন কোনো ধরনের উৎসাহ এবং প্রস্রয় না পায়। সে লক্ষ্যে পুলিশকে একা কাজ করলে হবে না। সবাইকে সাথে নিয়ে মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ার আহ্বান জানান ডিআইজি।

পুলিশ সুপার মো. সাইফুল ইসলাম জানান, মাদক ব্যবসায়ী/সেবী আত্মসমর্পণ একটি চলমান প্রক্রিয়া। প্রতি মাসেই পুলিশের মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভায় এসে স্বেচ্ছায় আত্মসমর্পণ করছে মাদক ব্যবসায়ী ও সেবীরা। এই ধারাবাহিকতায় এবার জেলার বিভিন্ন উপজেলার ১১জন মাদক বিক্রেতা স্বেচ্ছায় আত্মসমর্পণ করেছে। তাদের সুপথে রাখার জন্য পুলিশের পক্ষ থেকে নানা পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। এদের মধ্যে যাদের বিরুদ্ধে মাদকের মামলা রয়েছে তাদের মামলা আইনি প্রক্রিয়ায় চলবে বলে জানান পুলিশ সুপার।-ডেস্ক