-সংগ্রহীত

(দিনাজপুর২৪.কম) ঘূর্ণিঝড় আমফানের প্রভাবে বরগুনায় দমকা বাতাস ও ভারী বর্ষণ শুরু হয়েছে। বুধবার ভোর ৬টা থেকে থেমে থেমে দমকা বাতাসের পাশাপাশি হালকা থেকে ভারী বর্ষণ শুরু হয়।

মঙ্গলবার রাত ৯টার পর থেমে থেমে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হলেও রাত ১০টার পর ভারী বর্ষণ শুরু হয়ে কিছুক্ষণ পর থেমে যায়। রাতভর তেমন কোনো বৈরী প্রভাব ছিল না।

বুধবার ভোরে কলাপাড়া আবহাওয়া অধিদফতরের কর্মকর্তা বশির আহমেদ জানান, ঘূর্ণিঝড় আমফানের প্রভাবে বৃষ্টি ও দমকা বাতাস বইতে শুরু করেছে। বাংলাদেশের উপকূলে আঘাত হানার পর এর বাতাসের গতিবেগ থাকবে ঘণ্টায় ১৪০ থেকে ১৬০ কিলোমিটার।

পাউবো বরগুনা কার্যালয়ের নির্বাহী প্রকৌশলী কাওছার হোসেন জানান, রাত ৯টা পর্যন্ত স্বাভাবিকের চেয়ে বরগুনার নদ-নদীর জোয়ারের পানি দেড় ফুট বেশি উচ্চতায় প্রবাহিত হচ্ছে।

এ বিষয়ে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাসুমা আক্তার বুধবার ভোরে জানান, এখন পর্যন্ত আশ্রয় কেন্দ্রগুলোতে মানুষ আশ্রয় নিতে শুরু করেনি। উপকূলবর্তী চরম ঝুঁকিপূর্ণ কিছু এলাকার আশ্রয় কেন্দ্রে অল্প সংখ্যক মানুষ আশ্রয় নেয়ার খবর পাওয়া গেছে। তবে আজ দুপুরের মধ্যেই ঝুঁকিপূর্ণ বসতির লোকজনকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেয়ার ব্যবস্থা করা হবে। -ডেস্ক