(দিনাজপুর২৪.কম) অস্ট্রেলিয়ারা গতকাল সকালে ঘুম থেকে জেগে দেখে প্রিয় ফেসবুকে কোনো নিউজ নেই। সব ধরনের খবরের কনটেন্ট ব্লক করে দিয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমটি। ফলে বৃহস্পতিবার থেকে স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক নিউজ সাইটের সব ফেসবুক পেজে ঢুকতে পারছে না দেশটির ফেসবুক ব্যবহারকারীরা। আবার অস্ট্রেলিয়ার নিউজ প্রকাশনাও দেখতে পারছে না দেশটির বাইরে থাকা ফেসবুক ব্যবহারকারীরা। এর সঙ্গে লাপাত্তা হয়ে গেছে সরকারের স্বাস্থ্য, সমাজকল্যাণ, জরুরি সেবা ও প্রয়োজনীয় তথ্যের পেজগুলোও। তবে পরে অবশ্য ফেসবুক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এগুলো ভুলবশত ব্লক করা হয়েছে।

সরকারের সঙ্গে একটি আইন নিয়ে বিরোধের পরিপ্রেক্ষিতে গত বুধবার এ সিদ্ধান্ত কার্যকর করে ফেসবুক, যা বোঝা যায় বৃহস্পতিবার সকাল থেকে। ফলে অস্ট্রেলিয়াজুড়ে সমালোচনা শুরু হয়। গণমাধ্যম থেকে শুরু করে রাজনীতিবিদ ও মানবাধিকারকর্মীরাও এর সমালোচনা করেছেন। অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন তাঁর পেজবুক পেজে লেখেন, ‘ফেসবুক আজ অস্ট্রেলিয়াকে যেভাবে আনফ্রেন্ড করল, স্বাস্থ্য ও জরুরি সেবার প্রয়োজনীয় তথ্য পাওয়া বন্ধ করে দিল, এটি চরম ঔদ্ধত্যপূর্ণ এবং হতাশাজনক।’ ওই আইনে নিউজ কনটেন্টের কারণে ফেসবুককে মূল্য পরিশোধ করতে বলা হয়েছে। তবে ফেসবুক ও গুগলের মতো কম্পানিগুলো বলছে, ইন্টারনেট যেভাবে কাজ করে তা এই আইনে প্রতিফলিত হয়নি আর অন্যায্যভাবে তাদের জরিমানা করা হচ্ছে। গত বুধবার অস্ট্রেলিয়ার পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষে আইনটি অনুমোদিত হয়। দেশটির সরকার বলছে তারা আইন অনুযায়ী অগ্রসর হবে।

সূত্র: বিবিসি, রয়টার্স।