(দিনাজপুর২৪.কম) ডিসেম্বরের পর ফের শুরু হয়েছে শৈত্যপ্রবাহ। রাজশাহী, পাবনা, চুয়াডাঙ্গা, কুড়িগ্রাম ও যশোর জেলা এবং এগুলোর আশপাশের অঞ্চলের ওপর দিয়ে শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। সোমবার (৬ জানুয়ারি) রাতে তাপমাত্রা আরও ১ থেকে ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস কমবে। ফলে আরও বেশ কিছু এলাকায় বিস্তৃত হবে শৈত্যপ্রবাহ।আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে আসা কনকনে ঠাণ্ডা বাতাসের গতি হবে ঘণ্টায় ৬ থেকে ১২ কিলোমিটার। তবে ঢাকায় শৈত্যপ্রবাহের সম্ভাবনা নেই।

সোমবার সকালের দিকে ঢাকার তাপমাত্রা কিছুটা বেড়ে যায়। দুপুরের দিকে ঝাঁঝালো গরমের অনুভূতিও পায় নগরবাসী। কিন্তু দুপুরের পর আবারও নেমে যায় তাপমাত্রা। আর সন্ধ্যার পর থেকে কনকনে ঠাণ্ডা বাতাস বইতে শুরু করেছে।আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, সোমবার রাত থেকে মঙ্গলবার (৭ জানুয়ারি) দুপুর পর্যন্ত আবহাওয়া এমনই থাকবে। দুপুরের দিকে সূর্য উঠলেও আকাশ মেঘলা থাকার ফলে তাপমাত্রার খুব বেশি পরিবর্তন হবে না। যদিও ঢাকার বাইরে শৈত্যপ্রবাহ শুরু হলেও এর প্রভাব পড়বে না রাজধানীতে। তবে ঢাকায়ও কনকনে ঠাণ্ডা বাতাস বইবে।সোমবার দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে দিনাজপুর ও রাজশাহীতে, ৮ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। রবিবার (৫ জানুয়ারি) সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল তেঁতুলিয়ায়, ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এ দিন ঢাকায় তাপমাত্রা কমেছে প্রায় ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। রাজধানীতে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড হয় ১৩ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এছাড়া ময়মনসিংহে ১০, চট্টগ্রামে ১৬ দশমিক ১, সিলেটে ১৪ দশমিক ৪, রাজশাহীতে ৮ দশমিক ৮, রংপুরে ১১, খুলনায় ১৫ দশমিক ৫ এবং বরিশালে ১২ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড হয় সোমবার। যেখানে সবগুলো বিভাগেই তাপমাত্রা আগের দিনের চেয়ে কমেছে।এ দিকে বুধবার (৮ জানুয়ারি) থেকে তাপমাত্রা কিছুটা বাড়তে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস। -ডেস্ক