মিয়ানমারে সেনাঅভ্যুত্থান বিরোধী বিক্ষোভের সংবাদ প্রচার করায় সাংবাদিক আটক করা হয়েছে। ছবি : সংগৃহীত

(দিনাজপুর২৪.কম) মিয়ানমারে রোহিঙ্গা ইস্যুর পর এবার সেনাঅভ্যুত্থান বিরোধী বিক্ষোভের সংবাদ প্রচার করায় বার্তা সংস্থা এপিসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমের কমপক্ষে ১০ সাংবাদিককে আটক করা হয়েছে। তবে গতকাল সোমবার তাদের আটক করা হলেও আনুষ্ঠানিক অভিযোগ গঠনের কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

স্থানীয় বিভিন্ন গণমাধ্যম বলছে, আটক সাংবাদিকরা মিয়ানমারের বিভিন্ন শহরে অভ্যুত্থান বিরোধী খবর সংগ্রহে কর্মরত ছিলেন। আটকের ঘটনায় গণমাধ্যমকর্মীরা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ‘সাংবাদিকরা কোনো বিক্ষোভ করেননি, কেবল নিজেদের দায়িত্ব পালন করছেন। পেশাগত দায়িত্বের কারণে কাউকে অন্যায়ভাবে আটক গ্রহণযোগ্য নয়।’

এর আগে, সাংবাদিকরা সেনা অভ্যুত্থান শব্দ ব্যবহার করলে কঠোর ব্যবস্থার হুঁশিয়ারি দেয় জান্তা সরকার। রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে সংবাদ করায় রয়টার্সের দুই সাংবাদিককেও আটক করেছিল নেপিদো। পরে অবশ্য তাদের মুক্তি দেওয়া হয়।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে জাতীয় নিরাপত্তার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ কিছু নথি ফাঁসের অভিযোগে রয়টার্সের দুই সাংবাদিক ওয়া লোন এবং কিও সোই কো-কে গ্রেপ্তার করে মিয়ানমার পুলিশ। তখন রোহিঙ্গা-নিধনের খবর করছিলেন তারা। সে সময়ই সরকারি গোপনীয়তা আইন ভাঙায় কারাদণ্ড দেয় মায়ানমারের আদালত। ওই ঘটনায় তুমুল শোরগোল পড়ে গোটা বিশ্ব জুড়ে। শেষমেশ ওই দুই সাংবাদিককে মুক্তি দেওয়া হয়। -ডেস্ক