(দিনাজপুর২৪.কম) দে ঘরমুখো দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলার যাত্রী ও যানবাহনের চাপ পড়েছে পাটুরিয়া ফেরিঘাটে। ফেরি সংকটের কারণে যানবাহন পারাপারে তিন থেকে চার ঘণ্টা পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হচ্ছে। ব্যক্তিগত পরিবহন অর্থাৎ প্রাইভেটকার, মাইক্রেবাসের চাপ অনেক বেশি বেড়েছে। ফেরিঘাট ছাড়িয়ে ৫ থেকে ৬ কিলোমিটার পর্যন্ত ছোট গাড়ির লাইন পড়ে গেছে।
ঘাট কর্তৃপক্ষ জানায়, ভোররাত অর্থাৎ সাহরির সময় থেকে পাটুরিয়াঘাটে যানবাহনের চাপ বাড়তে থাকে। যে হারে ফেরিতে যানবাহন পার করা হচ্ছে তার চেয়ে বেশি হারে যানবাহন ঘাটে এসে পৌঁছছে। এতে পারাপারে তাদের হিমশিম খেতে হচ্ছে।
বিআইডব্লিউটিসির আরিচা সেক্টরের এজিএম জিল্লুর রহমান জানান, ঈদ উপলক্ষে এই বহরে নতুন দুইটি ফেরি যুক্ত হওয়ার কথা থাকলেও সেগুলো ডকইয়ার্ড থেকে এখনো পাটুরিয়ায় পৌছেনি। বর্তমানে ১৫টি ফেরি দিয়ে যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে। এর মধ্যে বড় ফেরি  (রো রো) ৭টি, মাঝারি (কে-টাইপ) ফেরি দুইটি ও ছোট ফেরি (ইউটিলিটি) ৬টি রয়েছে।
তবে বিআইডাব্লিউটিসির এক কর্মকর্তা জানান, ঈদের আগে যে দুটি ফেরি যুক্ত হওয়ার কথা ছিল তা আসছে না এটা নিশ্চিত। ফেরি সংকটের কারণে যানজট কিংবা যাত্রী ভোগান্তির আশংকা রয়েছে বলে তিনি জানান।
এদিকে শুক্রবার থেকে ঈদের তিনদিন পর পর্যন্ত সাধারণ পণ্যবাহী ট্রাক পারাপার বন্ধ রাখা হয়েছে। পাটুরিয়ার টার্মিনালে ৫শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাক আটকে রয়েছে। -ডেস্ক