(দিনাজপুর২৪.কম) ফুলবাড়ী ট্রাজেডি দিবস আজ। ২০০৬ সালের এই দিনে দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে ৬ দফা দাবিতে বিক্ষোভ করেন বিক্ষুব্ধ জনতা। তাদের ওপর তৎকালীন বিডিআর ও পুলিশের গুলিতে নিহত হন আমিন, সালেকীন ও তরিকুল নামের তিন যুবক। আহত হন দু’শতাধিক নারী-পুরুষ। আন্দোলন ছড়িয়ে পড়ে পার্বতীপুর, বিরামপুরসহ বিভিন্ন জায়গায়। আন্দোলনের তীব্রতার মুখে ৩০শে আগস্ট সে সময়ের সরকার দাবি মেনে নিয়ে ‘ফুলবাড়ী চুক্তি’ করেন। ঘটনার ১৩ বছর পরেও পূরণ হয়নি সেই ৬ দফা দাবি।

সেদিনের ছয়দফা চুক্তির মধ্যে রয়েছে এশিয়া এনার্জিকে ফুলবাড়ী ও দেশ থেকে বহিষ্কার, উন্মুক্ত পদ্ধতির কয়লাখনি ফুলবাড়ীসহ দেশের কোথাও না করা, পুলিশ-বিডিআরের গুলিতে নিহতদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ প্রদান, আহতদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসার ব্যবস্থা, গুলি বর্ষণসহ হতাহতের প্রকৃত কারণ উদঘাটনে তদন্ত কমিটি গঠন, শহীদের স্মৃতিসৌধ নির্মাণসহ এশিয়া এনার্জির দালালদের গ্রেপ্তারসহ শাস্তি প্রদান, আন্দোলনকারীদের বিরুদ্ধে দায়ের করা সকল মামলা প্রত্যাহার এবং নতুন করে মামলা না করা।

দাবিগুলোর মধ্যে নিহত ও আহতরা কিছু ক্ষতিপুরণ পাওয়া ছাড়া আর কোনোটাই বাস্তবায়ন হয়নি।

২৬শে আগস্ট দিনটিকে তেল গ্যাস জাতীয় কমিটি ‘সম্পদ রক্ষা দিবস’ এবং সম্মিলিত পেশাজীবী সংগঠন ‘ফুলবাড়ী শোক দিবস’ হিসেবে পালন করেন। দিবসটি উপলক্ষে নেয়া কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে সকালে কালো পতাকা উত্তোলন, কালো ব্যাজ ধারণ, স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ, স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত আকারে স্মারণসভা এবং মসজিদ, মন্দির, গীর্জা ও পেগোডায় দোয়া এবং বিশেষ প্রার্থনা।