মোঃ আফজাল হোসেন, ফুলবাড়ী (দিনাজপুর২৪.কম) দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে কয়লা খনি বিরোধী ২৬শে আগস্ট ট্রাজেী দিবসের অষ্টম বার্ষিকী পালিত। আজ বুধবার দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে কয়লা খনি বিরোধী ২৬শে আগস্ ট্রাজেডী দিবস পালনে তেল, গ্যাস, খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি ফুলবাড়ী শাখা ও কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃবৃন্দরা সম্মিলিত ও পৃথক পৃথক ভাবে দিবসটি পালন করেন। সকাল ৭টা ১মিনিটে জাতীয় শোক পতাকা উত্তোলন, সকাল ৭ টা ৩০মিনিটে কালো ব্যাচ ধারণ, সকাল ৯টা ৩০মিনিটে শোক র‌্যালী ও ফুলবাড়ী শহর প্রদক্ষিণ, সকাল ১০টা ৩০মিনিটে শহীদ বেদীতে পুষ্প মাল্য অর্পণ, সকাল ১১টা ০১ মিনিটে নিমতলা মোড়ে স্মরণ সভা ও সমাবেশ, বিকেলে মসজিদ, মন্দির ও গীর্জায় দোয়া ও প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হয়। তেল- গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি ফুলবাড়ী শাখার আয়োজনে সকাল ১১টায় নিমতলা মোড়ে স্মরণ সভা ও সামবেশে অনুষ্ঠিত হয় ফুলবাড়ী তেল- গ্যাস শাখার আহব্বায়ক মোঃ সাইফুল ইসলাম জুয়েলের সভাপতিত্বে। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সচিব অধ্যাপক আনু মোহাম্মদ। তিনি বলেন ফুলবাড়ীর তেল গ্যাস খনিজ সম্পদ রক্ষা কমিটির নেতাদের নামে দায়ের করা মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করতে হবে, সারাদেশে উন্মুক্ত পদ্ধতিতে কয়লা উত্তোলনের ষড়যন্ত্র বন্ধ করতে হবে।  ফুলবাড়ী ৬ দফা চুক্তির পূর্ণবাস্তবায়ন করতে হবে। তেল- গ্যাস কমিটির ৬ থানার সম্মনায়ক সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ আমিনুল ইসলাম বাবলু তার বক্তেব্যে বলেন ফুলবাড়ী কয়লা খনি নিয়ে আবারও যে ষড়যন্ত্র চলছে তা প্রতিহত করা হবে। সরকার নিজস্ব অর্থায়নে যে পরীক্ষা নিরীক্ষা করার পায়তারা করছে তা কোন ভাবে করতে দেয়া হবে না। আমরা ফুলবাড়ী বাসী আর রক্ত ঝরাতে চাই না। যদি সরকার খনি উন্মুক্ত পদ্ধতিতে বড় পুকুরিয়া ও ফুলবাড়ীর শত শত বিঘা আবাদি জমি বাড়ি ঘর সবকিছু ধ্বংস করে করতে চায় তাহলে এর পরিণতি সরকারকে বহন করতে হবে। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন গণ সংহতি আন্দোলনের সম্মনায়ক জোনায়েদ সাকী, কমিউনিস্ট লীগ এর কেন্দ্রীয় সম্পাদক মোশাররফ হোসেন নান্নু, বাসদ এর কেন্দ্রীয় সদস্য এডভোকেট সাইফুল হোসেন পল্টু, বাংলাদেশ কমিউনিস্ট পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য আলতাফ হোসাইন, জাতীয় তেল- গ্যাস এর কেন্দ্রীয় সংগঠক এস এম খালেক, কেন্দ্রীয় কমিটির আদিবাসী পরিষদ এর রবীন্দ্র সরেন, তেল- গ্যাস এর সদস্য মাহা মির্জা, তেল- গ্যাস এর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সদস্য অধ্যাপক তানজীম উদ্দিন খান, জাতীয় গণফ্রন্টের কেন্দ্রীয় সদস্য সম্পাদক টিপু বিশ্বাস, কেন্দ্রীয় কার্যকরী কমিটির বাসদের সদস্য কৃষিবিদ ওবায়দুল্লা মুসা (মার্কসবাদী), কমিউনিস্ট পার্টির পলিটবুরো চেয়ারম্যান মাহামুদুল হাসান মানিক প্রমুখ। অপরদিকে পৃথক ভাবে ফুলবাড়ী ট্রাজেডি দিবস ২৬শে আগস্ট র‌্যালী ও আলোচনা সভার মধ্য দিয়ে পালন করেন সম্মিলিত পেশাজীবি সংগঠন ও ফুলবাড়ী বাসী। র‌্যালী শেষে পার্বতীপুরের বর্ণমালা স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষক ও করতোয়ার সাংবাদিক শেখ সাব্বির আলীর সভাপতিতে উর্বশী সিনেমা হলের সামনে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন ফুলবাড়ী পেশাজীবি সংগঠনের আহব্বায়ক পৌর মেয়র মোঃ মানিক সরকার। তিনি  তার বক্তেব্যে বলেন আমরা কয়লা খনি চাই না, তবু কেন এই কয়লা খনি করার জন্য ষড়যন্ত্র। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন দেশের কোথাও ফসলি জমি নষ্ট করে কয়লা খনি হবে না। তার পরেও কেন এত ষড়যন্ত্র। আমরা আমিন, সালেকিন, তুরিকুল কে হারিয়েছি আবারও যদি আন্দোলনে নামতে হয় তবু নামব কয়লা খনি হতে দেব না। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সভাপতি ডাক্তার মোকলেছুর রহমান, শিবলী সাদিক, মোঃ গোলাফর হেসেন গোলাপ প্রমুখ। এছাড়া বিভিন্ন সংগঠন দিবসটি পালন করেন।