(দিনাজপুর২৪.কম) হজ এজেন্সীর প্রতারণায় ৪৬ যাত্রীর হজ পালনে অনিশ্চয়তা দূর করতে এবার এগিয়ে এসেছে হজ এজেন্সীজ এসোসিয়েশন অব বাংলাদশ (হাব)। বৃহস্পতিবার দুপুর পর্যন্ত স্বদেশ ওভারসীসের ৪৬ জন হজযাত্রীর বাড়ি ভাড়ার মোসা সংগ্রহ ও ভিসার প্রক্রিয়া এজেন্সীর লোকজন শুরু করতে না পারায় হাব জানিয়েছে, প্রয়োজনীয় অর্থের সংস্থান করে দিলে তারাই এখন এই হজযাত্রীদের হজে পাঠানোর প্রক্রিয়া শুরু করবে।

এর আগে গত সোমবার দুপুর থেকে স্বদেশ ওভারসীসের মালিক শামসুদ্দিন আহমেদ তোহা হজ অফিসে আটক আছেন। একজন যাত্রীও হজে যাওয়ার বাকি থাকলে তাকে ছাড়া হবে না বলে হজ অফিস থেকে সাফ জানিয়ে দেয়া হয় এজেন্সী মালিক তোহাকে।

উল্লেখ্য হজযাত্রীদের টাকা নিয়ে নয়-ছয় করার অভিযোগে স্বদেশ ওভারসীস ( লাইসেন্স নং ১৫৩১) হজ এজেন্সীর মালিককে আটক করে।

ঢাকা হজ অফিস সূত্র জানায়, স্বদেশ ওভারসীস নামের এজেন্সীর মালিক শামসুদ্দিন আহমেদ তোহাকে গত তিনদিন যাবৎ হজক্যাম্পের দ্বোতলায় একটি ঘরে তালাবদ্ধ করে রাখা হয়েছে। এই এজেন্সীর এখনো ৪৬ জন হজযাত্রী হজক্যাম্পে এসে অবস্থান করছেন। তাদের কারোরই ভিসা বিমান টিকিট এবং বাড়ি ভাড়ার মোফাও সংগ্রহ করেননি এজেন্সীর লোকজন।

এদিকে বৃহস্পতিবার বিকেল পাঁচটায় হজ এজেন্সীজ এসোসিয়েশন অব বাংলাদশ (হাব) সভাপতি এম শাহাদাত হোসাইন তসলিম নয়া দিগন্তকে জানান, স্বদেশ ওভারসীসের মোট ৪৬ জন হজযাত্রী এখনো হজে যেতে পারেননি। আমরা শুরু থেকেই সমস্যা সমাধানের চেষ্টায় ঐ এজেন্সীর লোকজনকে সব ধরনের সহযোগিতা করে আসছি। কিন্তু এখনো তারা কোনো সমাধানের দিকে যেতে পারেনি । তাই আমরা বলেছি ভিসা প্রসেজ এবং সৌদী আরবের মোফা সংগ্রহ তথা বাড়ি ভাড়ার যাবতীয় কাজ এখন থেকে আমরাই (হাব) দেখভাল করবো। আমরা চাই যত দ্রুত সম্ভব হয় সমস্যার সমাধান হোক এবং এই যাত্রীদের হজে যাওয়া নিশ্চিত হোক। -ডেস্ক