মো. আফজাল হোসেন (দিনাজপুর২৪.কম)  দিনাজপুরের ফুুলবাড়ীতে উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামীলীগ প্রার্থীর নৌকা মার্কার পোষ্টার পোড়ানোর অভিযোগ এনে দুই চেয়াম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মাঝে সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে। এতে ফুলবাড়ী পৌর যুবলীগের সহ-সভাপতি মোঃ সাজ্জাদ হোসেন পলাশ একজন যুবক আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় সাথে জড়িত থাকায় মোঃ মমিনুল ইসলাম (৩৫) নামে এক জনকে আটক করেছে ফুলবাড়ী থানা পুলিশ । আটক ব্যক্তি ফুলবাড়ী পৌর শহরের উত্তর সুজাপুর গ্রামের আবু বক্কর এর ছেলে। গত ৩ মার্চ রোববার ফুলবাড়ী উপজেলার ৫ নং খয়েরবাড়ী ইউনিয়নের বাজার এলাকায় স¦তন্ত্র প্রার্থীর শ্রী সুদর্শন পালিত আনারস মার্কার সমর্থকরা ও আওয়ামীলীগ সমর্থীত প্রার্থী মোঃ আতাউর রহমান মিল্টন এর নৌকা মার্কার পোষ্টার পোড়ানোর অভিযোগ এনে ঐ দিন রাত্রী ১ঘটিকায় ফুলবাড়ী পৌর শহরের বটতলী নামক স্থানে দু’পক্ষের মাঝে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে ফুলবাড়ী পৌর যুবলীগের সহ-সভাপতি মোঃ সাজ্জাদ সরকার পলাশ মাথায় আঘাত প্রাপ্ত হলে অহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। পরে ফুলবাড়ী পুলিশ খবর পেয়ে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করেন। এ ঘটনার পর থেকে ফুলবাড়ী শহরে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর মধ্যে থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। এ বিষয়ে গত ০৪ সোমবার আনারস মার্কা চেয়ারম্যান স্বতন্ত্র প্রার্থী সুদর্শন পালিত এর সাথে মুঠোফোনে কথা বলতে চাইলে তিনি বলেন, ঘটনার বিষয়ে তিনি কিছুই জানেন না। অপর দিকে আওয়ামীলীগ সমর্থীত নৌকা মার্কা চেয়ারম্যান প্রার্থী আতাউর রহমান মিল্টন জানান,দলীয়ভাবে বিষয়টি নিয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হচ্ছে,সিদ্ধান্ত অনুযায়ী কারা এই ঘটনার সাথে জড়িত তাদের বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা নেয়া হবে। ঐ ঘটনার পরিপেক্ষিতে পৌর শহরে পূর্বগৌরিপাড়া গ্রামের মিজানুর রহমানের পুত্র মোঃ মুশফিকুর রহমান রিয়াদ(২৫) বাদি হয়ে গত ০৪/০৩/২০১৯ ইং তারিখে ১৮ জন এর নাম উল্লেখ্য করে এবং অজ্ঞাত ২০০/২৫০ জন কে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন। যাহার মামলা নং-২। ধারা ১৪৩/৩২৩/৩২৫/৩০৭/৪৩৫/৫০৬/১১৪ দ:বি:। এই মামলার আইও ফুলবাড়ী থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ সুলতান মাহমুদ। এই ঘটনার বিষয়ে ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ নাসিম হাবিব এর সাথে কথা বললে তিনি জানান, একপক্ষ মামলা করেছ। তদন্ত সাপেক্ষে প্রযোজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।