(দিনাজপুর টোয়েন্টিফোর ডটকম)দিনাজপুর শহরের পশ্চিম রামনগর আপন ঠিকানায় ষষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। মঙ্গলবার (৫ জানুয়ারি) দুপুরে নিজের শোয়ার ঘরের আড়ার সঙ্গে ওড়না পেচিয়ে সে আত্মহত্যা করে।

নিহত শিক্ষার্থীর নাম শ্রাবন্তি (১২)। সে পশ্চিম রামনগর আপন ঠিকানার ৯৯ নম্বর বাড়ির বাসিন্দা আব্দুল মালেক ও মোছা. সানু দম্পতির মেয়ে। সে এবার পঞ্চম শ্রেণি থেকে ষষ্ঠ শ্রেণিতে উঠেছিল এবং নতুন বই পেয়েছিল।

পরিবার ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, গত কয়েকদিন ধরে শ্রাবন্তি মায়ের কাছে পোলাও খাওয়ার জন্য আবদার করে আসছিল। কিন্তু তার বাবা একজন দরিদ্র ভ্যানচালক। কিন্তু পোলাওয়ের চাল কিনে আনতে পারেননি। মঙ্গলবার সে জেদ করে বসলে মা সানু মেয়ের জন্য দোকানে পোলাওয়ের চাল কিনতে যান। এ সময় শ্রাবন্তি নিজ শোয়ার ঘরে আড়ার সঙ্গে ওড়না দিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে।

কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত) আসাদুজ্জামান আসাদ আত্মহত্যার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, পোলাও খেতে না পারায় মায়ের ওপর অভিমান করে শ্রাবন্তি এই ঘটনা ঘটিয়েছে।