(দিনাজপুর২৪.কম) মিশর, চীন, মিয়ানমার থেকে ব্যাপক হারে পেঁয়াজ আমদানি হওয়ায় বাজারে সরবরাহ বেড়ে গেছে। এতে অতি মুনাফার আশায় বেশি দামে পেঁয়াজ কিনে মজুদ করা খুচরা ব্যবসায়ীরা পড়েছেন বিপাকে।

জানা গেছে, পেঁয়াজের দাম বেড়ে যাওয়ায় বাজারে ক্রেতা কমে গেছে। অন্যদিকে আমদানি করা পেঁয়াজে বাজারে সয়লাব। তারপরও পেঁয়াজের বাজার এখনও আগের অবস্থায় ফেরেনি।

রাজধানীসহ সারা দেশে প্রশাসনের নজরদারি ও অভিযান শুরু হয়েছে। এতে দুয়েকদিনে পেঁয়াজের দাম নিম্নমূখী হয়েছে।

বৃহস্পতিবার হিলি স্থলবন্দরে আমদানিকারদের সাথে বৈঠকে বসে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের একটি দল। এ সময় আড়ৎ ও গুদাম পরিদর্শন করে দলটি।

রাজধানীর অন্যতম পেঁয়াজের আড়ৎ শ্যামবাজারে পেঁয়াজের দাম বুধবারের মতই রয়েছে। আড়তে আমদানি করা পেঁয়াজের সরবরাহ বাড়লেও সেই তুলনায় ক্রেতা নেই বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

আড়তে পেঁয়াজের দাম অপরিবর্তিত থাকলেও খুচরা বাজারে গতকালের তুলনায় কেজিতে ৫ থেকে ১০ টাকা কমেছে। কিন্তু ক্রেতার উপস্থিতি কমে গেছে। ফলে এতোদিন অতিলাভের আশায় বেশি দামে কিনে রাখা পেঁয়াজ নিয়ে এবার বিপাকে পড়েছেন খুচরা বিক্রেতারা।

বাজারে এখন সবচেয়ে কম দামে পাওয়া যাচ্ছে মিয়ানমার থেকে আমদানি করা পেঁয়াজ। -ডেস্ক