(দিনাজপুর২৪.কম)  বাংলাদেশ পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল (আইজিপি) এ কে এম শহীদুল হক বলেছেন, ‘জাতীয় নিরাপত্তা, প্রয়োজন ও সংকটকালে পুলিশ এবং সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যরা কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে কাজ করে থাকেন। দেশের প্রয়োজনেই বাংলাদেশ পুলিশ এবং সশস্ত্র বাহিনীর মধ্যে বিদ্যমান পারস্পরিক শ্রদ্ধাবোধ, সম্প্রীতি ও সৌহার্দ্যকে আরও সম্প্রসারিত করতে হবে।’ ন্যাশনাল ডিফেন্স কলেজের (এনডিসি) আর্মড ফোর্সেস ওয়্যার কোর্স-২০১৫ এর প্রতিনিধি দল মঙ্গলবার সকালে পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স পরিদর্শনের সময় তিনি এ সব কথা বলেন। এনডিসির চিফ ইন্সট্রাকটর ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মেজবাহ-উল-আলম চৌধুরী প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন। আইজিপি ও প্রতিনিধি দলের প্রধান পরস্পর শুভেচ্ছা স্মারক বিনিময় করেন। পরে অতিরিক্ত আইজিপি মো. মইনুর রহমান চৌধুরীর সভাপতিত্বে পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের সম্মেলন কক্ষে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় এআইজি কাজী জিয়াউদ্দিন বাংলাদেশ পুলিশের ইতিহাস, ঐতিহ্য, মহান মুক্তিযুদ্ধে বীরত্বপূর্ণ অবদান, দেশের আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় পুলিশের অবদান, জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা, পুলিশের সীমাবদ্ধতা ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা ইত্যাদি বিষয় প্রতিনিধি দলের সামনে তুলে ধরেন। তিনি জনমুখী পুলিশিং, ফোর্স থেকে সার্ভিসে রূপান্তর ও পুলিশের প্রযুক্তির ব্যবহার বৃদ্ধি সম্পর্কে তথ্য উপস্থাপন করেন। প্রতিনিধি দলের সদস্যরা আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা, পুলিশের কাছে জনগণের প্রত্যাশা, ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা, ভবিষ্যৎ পুলিশিং ইত্যাদি সম্পর্কে জানতে চান। পুলিশের এআইজি রখফার সুলতানা খানমের পরিচালনায় ডিআইজি চৌধুরী আবদুল্লাহ-আল-মামুন, ডিআইজি মো. আতিকুল ইসলাম, অতিরিক্ত ডিআইজি মো. ফিরোজ-আল-মুজাহিদ খান, অতিরিক্ত ডিআইজি ব্যারিস্টার মো. হারুন-অর-রশিদ, এআইজি মো. নজরুল ইসলাম প্রমূখ প্রতিনিধি দলের সদস্যদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন।
 এ সময় অতিরিক্ত আইজিপি মো. মইনুর রহমান চৌধুরী প্রতিনিধি দলের সদস্যদের পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সে স্বাগত জানিয়ে বলেন, ‘এ সফর পুলিশ ও সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের মধ্যে বিরাজমান বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক আরও সুদৃঢ় করবে। এ ধরনের সফরের আয়োজন করার জন্য এনডিসি কর্তৃপক্ষকে আন্তরিক ধন্যবাদ। আশা করছি ভবিষ্যতে এ ধারা অব্যাহত থাকবে।’ প্রতিনিধি দলের পক্ষে লে. কর্নেল শহীদুজ্জামান সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের উষ্ণ অভ্যর্থনা ও আন্তরিক আতিথেয়তা প্রদানের জন্য পুলিশ প্রশাসনকে ধন্যবাদ ও আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জানান। প্রতিনিধি দলে আর্মড ফোর্সেস ওয়্যার কোর্সের ৩৭ জন প্রশিক্ষণার্থী, ৯ জন ফ্যাকাল্টি মেম্বারসহ মোট ৪৬ জন কর্মকর্তা ছিলেন। -ডেস্ক