বিষ্ণুপদ রায় (দিনাজপুর২৪.কম)  ধান কাট নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষ এড়াতে দায়িত্ব পালন কালে হামলার শিকার হয়ে ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জে এক দারোগার (এসআই) মাথা ফাটার ঘটনায় থানায় ৩০ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত নামা আরো ১৭০ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। রোববার রাতে থানার এস আই শাখাওয়াত হোসেন বাদী হয়ে এ মামলা দায়ের করেন। এ ঘটনায় আটক ৫ জনকে সোমবার ঠাকুরগাও আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।
থানার ওসি প্রদীপ কুমার রায় জানায়, রোববার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার জাবরহাট ইউনিয়নের চন্দরিয়া দহপাড়া গ্রামে আইনীভিটা কান্দরে জনৈক করিম একদল ভাড়াটে লোক নিয়ে জবেদ আলী পরিবারের রোপন করা পাকা ধান খেত কাটতে যায়। এতে বাধা দেয় জবেদ আলীর পরিবার। ধান কাটাকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে থানার এস আই তালেব সহ পুলিশের একটি দল সেখানে যায়। এক পর্যায়ে দু’পক্ষেরই মারমুখি হয়ে উঠে। এ সময় করিমের ভাড়াটেদের হামলায় মাথা ফাটে দারোগা তালেবের। তাকে পীরগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ অভিযান চালিয়ে করিম, ফরিদ, লিটন, হারুন ও শুকুর আলী নামে ৫ জনকে আটক করে। এ ঘটনায় হামলা চালিয়ে দায়িত্বরত পুলিশ কর্মকর্তাকে জখম করা ও কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগে থানায় মামলা করা হয়েছে। ৫ জন গ্রেফতার হয়েছে। আহত পুলিশ কর্মকর্তার চিকিৎসা চলছে বলেও জানান থানার ওসি প্রদীপ কুমার।
উল্লেখ্য, ঐ জমি নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে বেশ কয়েক বছর ধরে বিরোধ চলছিল।