চন্দন মিত্র (দিনাজপুর২৪.কম)  দিনাজপুর সদরের পল্লী এলাকার ৭ নং উথরাইল ইউনিয়ন পরিষদের রামপুরা মৌজার শ্রী শ্রী ধোয়াকালী মন্দিরের পুকুরে কতিপয় দূর্বৃত্ত বিষ প্রয়োগ করে মাছ নিধোন করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া যায়। ৭ নং উথরাইল ইউনিয়নের রামপুরা মৌজার ৭ নং ওয়ার্ডের পূজা উৎযাপন পরিষদের সভাপতি শ্রী বিনয় চন্দ্র রায় ও সহ সভাপতি প্রবীর চন্দ্র রায় বলেন যে, গত ২৬ মার্চ রাত্রী আনুমানিক ৩টার দিকে একই এলাকার বাসিন্দা বাবলু, মন্টু, ঠাকুর দাস, রামবাবু, হারুণ, মানিকও ৫ নং ইউনিয়নের ওয়াচ করণী গাটু সহ কতিপয় দুষ্কৃতিকারী ধোয়াকালী মন্দিরের দশের পুকুরে বিষ ছিটিয়ে প্রায় ৪০ মন মাছ নিধন করে। যার আনুমানিক মূল্য প্রায় দেড় থেকে দুই লক্ষ টাকা। উক্ত ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে দিনাজপুর কোতয়ালী থানায় বিষয়টি অবগত করলে দিনাজপুর কোতয়ালী থানার উপ-পরিদর্শক (এস.আই) মোঃ রেজা ঘটনাস্থলে গিয়ে সরেজমিনে ঘটনাটি অনুসন্ধান করেন এবং আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস প্রদান করেন। স্থানীয় প্রায় ১৭০টি পরিবারের পক্ষ থেকে বলা হয় যে, এই পুকুরের আয় দিয়ে মন্দিরের যাবতীয় কর্মকান্ড পরিচালিত হয়ে আসছে। তারা এও অভিযোগ করে বলেন যে, ইতিপূর্বে ৭ই অক্টোবর ২০১৭ সালেও উক্ত কতিপয় দুষ্কৃতিকারী একইভাবে পুকুরে বিষ ছিটিয়ে পুকুরের মাছ বিনষ্ট করেছিল। দেবত্তর সম্পত্তির এ পুকুরটি নেওয়ার জন্য কতিপয় ব্যক্তি দীর্ঘদিন যাবৎ চক্রান্ত চালিয়ে যাচ্ছে। তারা শুধু নিজেদের স্বার্থ রক্ষার জন্য একের পর এক অসৎ অপকর্ম ঘটিয়ে যাচ্ছে অথচ উক্ত দুষ্কৃতিকারীদের বিরুদ্ধে আইনের কোন সুষ্ঠ প্রয়োগ না থাকার কারণেই তাদের সাহস বেড়েই চলেছে বলে অভিযোগ করেন স্থানীয় এলাকাবাসী। তাদেরকে দ্রুত আইনের আওতায় এনে শাস্তি প্রদানের দাবি করেন ভুক্তভোগী এলাকাবাসী।