SAMSUNG CAMERA PICTURES

বিষ্ণু পদ রায় (দিনাজপুর২৪.কম) রংপুরের একটি কোল স্টোরেজের নাম ভাঙ্গিয়ে ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জে আলু ক্রয়ের নামে প্রতারণার আশ্রয় নিয়েছে দুই প্রতারক। এতে চরম বিপাকে পড়েছেন এক ব্যবসায়ী সহ শত শত চাষী। পীরগঞ্জ হাসপাতাল গেটের ব্যবসায়ী মা বাণিজ্যালয় এর পরিচালক বেলাল হোসেন জানান, রংপুরের ময়না কুঠি কোল ষ্টোরেজ এর নাম করে উমেদ আলী ও মোজাম ফকির নামে দুই ব্যক্তি সাড়ে ১০ টাকা কেজি দরে তার কাছ থেকে ৫০ হাজার বস্তা আলু কেনার কথা বলে কয়েক লাখ টাকা অগ্রিম দিয়ে যায়। এরপর তিনি পীরগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন গ্রামসহ শিবগঞ্জ এলাকার ৫ শতাধিক কৃষকের সাথে যোগাযোগ করেন এবং তাদের আলু কিনতে বস্তা এবং কিছু কিছু করে টাকা অগ্রীম প্রদান করেন। সম্প্রতি ঐ দু’ব্যক্তি তার কাছ থেকে বিভিন্ন কৃষকের প্রায় ১২ হাজার বস্তা আলু কিনেন। এরপর কোন কিছু না জানিয়েই তারা মোবাইল ফোন বন্ধ করে দেয় এবং কোন প্রকার যোগাযোগ করেন না। এতে বিপাকে পড়েন তিনি। তিনি জানান, অন্য যেসব কৃষকের আলু কিনার কথা বলে তিনি টাকা অগ্রিম দিয়ে রেখেছিলেন তারা এখন আলু বস্তা করে রেখেছে। কিন্তু ঐ দুই ব্যক্তির কোন খোঁজ না পাওয়ায় অনেকটা চাপের মধ্যে আছি। মাঠে এখন আমার প্রায় ৩০ লাখ টাকা এবং ৩৫ হাজার বস্তা পড়ে আছে। এখন কি করবো বুঝতে পারছি না।” এদিকে কৃষকরা তাদের আলু নিয়ে পাকা রাস্তার ধারে দিনের পর দিন অপেক্ষা করলেও বিক্রি করতে পারছেন না। অনেকে অন্যত্র কম দামে বিক্রি করছেন। বিলপাড়া গ্রামের কৃষক মমতাজ আলী বলেন ৫০০ বস্তা আলু নিয়ে এখন দুশ্চিন্তায় আছি। আলু কিনবে বলে কিছু টাকা দিয়ে রেখেছিল। কিন্তু এখন আর আলু কিনছে না। এভাবে রাস্তার পাশে বস্তায় আলু গুলো পড়ে থাকলে কয়েকদিন পর নষ্ট হয়ে যাবে।” প্রায় একই রকম কথা জানান জগথা গ্রামের জয়নাল। তিনি বলেন, আলু কিনবে বলে অন্য কারো সাথে চুক্তি করি নাই।এখন আলু কিনছে না। আমার ১০০বস্তা আলু নষ্ট হয়ে যাওয়ার পথে। তার মত শত শত কৃষকের অবস্থা এখন শোচনীয়। তারা এর প্রতিকার চান।