(দিনাজপুর২৪.কম) ইউয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগে বার্সেলোনা-পিএসজি’র মধ্যকার ম্যাচ পরিচালনা নিয়ে রেফারির সমালোচনা চলছেই। শেষ ষোলোর প্রথম লেগে ৪-০ গোলে বিধ্বস্ত হওয়ার পরও পরের রাউন্ডে ইতিহাস গড়ে ৬-১ গোলে জেতে বার্সেলোনা। ওই ম্যাচে রেফারি ডেনিস আয়তেকিনের বেশ কিছু সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। বিষয়টি নিয়ে কথা বলেছেন পিএসজির কোচ উনাই এমেরি ও মালিক নাসের আল খেলাইফি। এমন কি ইউয়েফা রেফারিং কমিটিও আয়তেকিনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে যাচ্ছে। চলতি মৌসুমে সামনে তাকে আর কোনো ম্যাচ পরিচালনার দায়িত্ব না দেয়ার খবর বের হয়েছে। আর জার্মানির এ রেফারির বিরুদ্ধে এবার আরো গুরুতর অভিযোগ উঠলো। সেদিন তিনি পিএসজির বেশ কয়েকজন খেলোয়াড়কে মাঠের মধ্যেই গালি দিয়েছিলেন বলে অভিযোগ। ফ্রান্সের কয়েকটি সংবাদমাধ্যম এই দাবি করছে। এ খবর দিয়েছে স্প্যানিশ ক্রীড়া সংবাদমাধ্যম ‘মার্কা’। ম্যাচ চলাকালে আয়তেকিনের মুখের নড়াচড়ার পরীক্ষা করে দেখা হয়েছে বলে দাবি করেছে ফ্রান্সের সংবাদমাধ্যমগুলো। পিএসজির খেলোয়াড়রা রেফারির কাছে কোনো দাবি করার পর কথা শেষ করার পরপরই তিনি সরে গিয়ে ইংরেজিতে ‘এফ’ বর্ণ দিয়ে শুরু চার বর্ণের একটি শব্দ দিয়ে খেলোয়াড়দের গালি দিয়েছেন। এমনটা তিনি বেশ কয়েকবার করেছেন বলে অভিযোগ এনেছে তারা। অন্যদিকে চ্যাম্পিয়ন্স লীগের শেষ ষোলোর ফিরতি লেগের ওই ম্যাচটি বাতিল করে নতুন করে ফের ম্যাচটি আয়োজনের জন্য আদালতের দারস্ত হচ্ছে পিএসজি’র সমর্থকরা। পিএসজি’র একদল সমর্থক প্রায় ৩০০০ মানুষের স্বাক্ষর সংগ্রহ করেছে। সেদিনের ম্যাচে রেফারি মোট ১৩টি ভুল সিদ্ধান্ত দিয়েছেন বলে চিহ্নিত করেছে তারা। বিষয়গুলো তুলে ধরে স্বাক্ষর সম্বলিত ওই আবেদনপত্র নিয়ে তারা আদালতে যাবে বলে জানিয়েছে স্প্যানিশ ক্রীড়াসংবাদমাধ্যম ‘মার্কা’। এছাড়া ওই ম্যাচের রেফারিং নিয়ে মুখ খুলেছেন পিএসজির মালিক নাসের আল খেলাইফি। তিনি বলেন, ‘রেফারি অনেক ভুল করেছে। সবাই দেখেছে- ডি মারিয়াকে মাসচেরানো ডি বক্সের মধ্যে মারাত্মক ফাউল করে ফেলে দিলেও রেফারি পেনাল্টি দেননি। সেটা দিলে ম্যাচের ফল তখন ৩-২ হতো। আর শেষদিকে লুইস সুয়ারেজের পড়ে গিয়ে পেনাল্টি আদায় নিয়ে আমি কিছু বলব না। কী হয়েছে সেটা সবাই দেখেছে।’ -ডেস্ক