স্টাফ রিপোর্টার (দিনাজপুর২৪.কম) ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গৃহিত কর্মসূচী পাসপোর্ট সেবা কার্যক্রমে নতুন গতি এনে দিয়েছে। ফলে এখন এক কোটি ৬৫ লাখেরও বেশি মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট প্রিন্ট করে সংশ্লিষ্টদের প্রদান করা হয়েছে। সরকারের এই মহৎ কাজকে সকলের সাধুবাদ জানানো প্রয়োজন। সব ধরনের সরকারী সেবা জনসাধারনের দোরগড়ায় পৌছে দিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগ আজ সর্বস্তরে প্রশংসিত। সকল সরকারী চাকুরীজীবী কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আন্তরিকভাবে কাজ করে সরকারের মহৎ উদ্দেশ্যকে সফল করতে হবে। কোন সেবা পেতে যেন জনগন কোন প্রকার বিড়ম্বনার সম্মুখীন না হয়, সেদিকে সবাইকে সজাগ ও সচেতন থাকতে হবে। প্রত্যেক সরকারী চাকুরীজীবীদের একথা অনুধাবন করতে হবে। আমাদের প্রচেষ্টার মাধ্যমেই এদেশের উন্নয়ন-অগ্রগতি নির্ভর করে।
“পাসপোর্ট নাগরিক অধিকার-নিঃস্বার্থ সেবাই অঙ্গীকার” এই প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে গতকাল রোববার দিনাজপুর আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস প্রাঙ্গণে ‘পাসপোর্ট সেবা সপ্তাহ ২০১৭’ উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে দিনাজপুর জেলা প্রশাসক মীর খায়রুল আলম উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের সহকারী পরিচালক রোতিকা সরকারের সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ গোলাম রাব্বী, দিনাজপুর সিভিল সার্জন ডাঃ সাদেক মিয়া ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ কাজেমউদ্দীন। বক্তব্য রাখেন, সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী সুশীল কুমার সাহা, পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ ফয়জুর রহমান, ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ টিআইবি’র সহকারী ব্যবস্থাপক (অর্থ-প্রশাসন) পরিতোষ রায় ও এরিয়া ম্যানেজার মোঃ আব্দুল হান্নান আজাদ। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের রেকর্ড কিপার আবু বক্কর সিদ্দিক। আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের সহকারী পরিচালক রোতিকা সরকার জানান, এখন থেকে নিজস্ব নতুন ভবনে কাজ শুরু করেছে দিনাজপুর আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস। এখন থেকে আর কোন বিড়ম্বনা বা সেবা পেতে নাগরিকদের কোন প্রকার জটিলতায় পড়তে হবে না। পাসপোর্ট অফিসের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারী নতুন অফিসে নতুন উদ্যেমে কাজ শুরু করেছে। পাসপোর্ট অফিসের কর্মচারীরা জানান, আমাদের নতুন এডি যোগদানের পর থেকেই পাসপোর্ট অফিসের চালচিত্র পরিবর্তন হয়েছে। তাঁর আন্তরিকতার নিষ্ঠায় অফিসে সকলেই স্ব-স্ব দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করে যাচ্ছে। আর এজন্যই জনগণ এখানকার সবধরণের সেবা সঠিকভাবে ও সঠিক সময়ে পেতে শুরু করেছে।