মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, পার্বতীপুর (দিনাজপুর২৪.কম) পার্বতীপুর উত্তর শালন্দার কাছারী দাখিল মাদরাসার কম্পিউটার শিক্ষক মোঃ আনিছুর রহমান নিয়োগের পর থেকে কিছুদিন কম্পিউটার কাজকর্ম করেন, পরে দীর্ঘদিন যাবত কম্পিউটার নষ্ট হলে আলমারীর উপরে রেখে দেন। কম্পিউটার মেরামত করার কোন পদক্ষেপ গ্রহণ তিনি করেন না। শুধু হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর করে চলে আসার পরে মোঃ আনিছুর রহমান কম্পিটার শিক্ষক প্রধান হিসেবে তার নিজস্ব ব্রাইটেন রেসিডেনসিয়াল কিন্ডার গার্টেন ও ব্রাইট স্টার কোচিং সেন্টার চালান। সুপার মমতাজ আলী মাদরাসার যাবতীয় কাজকর্ম বিভিন্ন কম্পিউটার থেকেই নিজেই করেন বলে জানা গেছে।  সরে জমিনে তদন্ত করে মাদরাসার নবম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে জিজ্ঞাসা করলে জানা যায় সে তার রোল নম্বর জানে না। সে আরও বলে যে মাদরাসায় নিয়মিত ক্লাস হয়না এবং রোল নম্বর ডাকা হয়না। সুপার মাদরাসায় নিয়মিত না আসার কারনে দু-একটি ক্লাস হয়ে ছুটি দেয় বলে জানান।