মোঃ জাহাঙ্গীর আলম/জিয়াউর রহমান (দিনাজপুর২৪.কম) দিনাজপুর জেলার পার্বতীপুর উপজেলা ৫নং চন্ডিপুর ইউনিয়নের উত্তর শালন্দার কাচারী দাখিল মাদরাসার সুপার মমতাজ আলী ৫নং চন্ডিপুর ইউনিয়নের আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ মজিবর রহমান সরকার, মোঃ আজাহারুল ইসলাম পলাশ ও মোঃ শাহাদত হোসেন ভুট্টু এর নামে দিনাজপুর সহকারী জজ আদালতে মিথ্যা, বানোয়াট, ভিত্তিহীন, চাদাবাজি একটি মামলা দায়ের করেন। মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে প্রতিবাদ জনসভায় সভাপতিত্ত করেন অত্র এলাকার কৃতি সন্তান বীব মুক্তিযোদ্ধা অবসর প্রাপ্ত পুলিশ জনাব মোঃ মোহসীন আলী। প্রতিবাদ জনসভায় অত্র এলাকার সর্বস্তরের জন সাধারনসহ উপজেলা ও ইউনিয়ন আওয়ামীলগের সকল নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন। উক্ত প্রতিবাদ জনসভায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান মোঃ মকবুল হোসেন অবসর প্রাপ্ত ম্যানেজার, জাহেনুর রহমার, সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ার হোসেন, ওয়ার্ড সভাপতি ফজিল উদ্দিন, গোলাম মোস্তাফা ধলা, নজরুল ইসলাম, নুর ইসলাম নুরু, মছির উদ্দীন, জাকির হোসেন, হায়দার আলী, মোঃ জিয়াউর রহমান, আজিজুল ইসলাম, ও মোঃ মজিবর রহমান সরকার উক্ত প্রতিবাদ জনসভায় উত্তর শালন্দার কাচারী দাখিল মাদরাসার সুপার মোঃ মমতাজ আলীর বিরুদ্ধে দুরনীতি ও অনিয়ম ২০১০ সাল থেকে একই ব্যাক্তি সভাপতি, ২০১৭ সাল থেকে মাদরাসা কমিটি নাই। দাতা ও মান্যগন্য ব্যাক্তিদের কমিটিতে রাখা হয় না। সুপার মমতাজ আলীর বাড়িতে বসে পকেট কমিটি, মাদরাসাটি দীর্ঘদিন যাবত মঞ্জরী নবায়ন বিহীন চালিয়ে ছিলেন, মাদরাসার রাতের আধারে এডহক কমিটি গঠনের অভিযোগ রয়েছে। জাতীয় দিবসগুলি মাদরাসায় উযযাপন হয়না, সরকারী বই বিক্রির দায়ে সাসপেন ও বিলভাতা বন্ধ ছিল, ইতিপূর্বে অনেক পত্র পত্রিকায় অনিয়মের অভিযোগ আছে। সাসপেন থাকায় ভারপ্রাপ্ত সুপার নিযুক্ত হয় ভারপ্রাপ্ত আনিছুর রহমান (কম্পিউটার শিক্ষক), বেলাল ও বেলালের সহযোগী মোঃ এমদাদুল হক চেয়ারম্যান প্রতিষ্ঠানের সহকারী শিক্ষক আঃ বাকী, ছাইদুল কারী, সৈইদুর রমান, এজান হক এদের মমদে এলাকার গন্যমান ব্যাক্তিদেরকে বৃদ্ধাঙ্গুল দেখিয়ে রাতের অন্ধকারে গোপনে  মোটা অংকের উৎকষের বিনিময়ে নিয়োগ বানিজ্য করেন।  ইতিপূর্ব থেকে সুপার মমতাজ আলী প্রায়ই প্রতিষ্ঠানে আসেন না, মাসে দু-চার দিন এসে সহি স্বাক্ষর করে চলে যান ও মাদরাসার নৈশ্য প্রহরী মোঃ একরামুল জানান যে মাদসার যত প্রয়োজণীয় কাগজপত্র সরিয়ে নিজ বাসায় নিয়ে যান। সুপার মমতাজ আলী তার দীর্ঘদিনের দুর্নিতি ও অনিয়ন চাপা দিতে পিছনে থাকা গডফাদারের পরামর্শে ৫নং চন্ডিপুর ইউনিয়নের আওয়ামীলীগের সভাপতি, উত্তর শালন্দার হাইস্কুলের সভাপতি, ঝাড়–য়ার ডাঙ্গা হাইস্কুলের সভাপতি, বিশিষ্ট সমাজ সেবক গরীব দুখি মেহনতি মানুষের সেবায় নিয়োজিত, জনাব মোঃ মজিবর রহমান সরকার, সাধারন সম্পাদক পলাশ ও শাহাদত হোসেন ভুট্টু তিনজনের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করেন। আজকের প্রতিবাদ সভায় এলাকাবাসী ক্ষুদ্ধ হয়ে জানায় সুপার মমতাজ আলীর চাকুরীচ্যুত, অর্থ  আত্মসাত বিভিন্ন অনিয়ন ও দূর্নিতি সেচ্ছাচারিতা বিষয়ে উর্ধতন কর্মকর্তার দৃষ্টি আর্কষন করেন এবং প্রয়োজণীয় ব্যবস্থা গ্রহনে শিক্ষা মন্ত্রির হস্তক্ষেপ কামনা করেন এলাকা বাসী।