(দিনাজপুর২৪.কম) ভারতের আসাম রাজ্যের নুমালীগড় রিফাইনারী থেকে বাংলাদেশের দিনাজপুর জেলার পার্বতীপুর রেলহেড ওয়েল ডিপো পর্যন্ত প্রস্তাবিত দীর্ঘ ১৩০ কিলোমিটার ভারত-বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশীপ পাইপ লাইন নির্মাণ কাজের আজ মঙ্গলবার উদ্বোধন করা হবে। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্রমোদী বিকাল ৫ টায় যৌথ ভাবে ভিডিও কনফারেন্সিং এর মাধ্যমে পাইপ লাইন নির্মাণ কাজের শুভ উদ্বোধন ঘোষনা করবেন। স্বল্প সময়ে বাংলাদেশে জ্বালানী তেল ডিজেল সরবরাহের জন্য প্রস্তাবিত পাইপ লাইনের ৫ কিলোমিটার ভারত ও অবশিষ্ট ১২৫ কিলোমিটার বাংলাদেশ অংশে নির্মাণ করা হবে। পাইপ লাইন নির্মাণ প্রকল্পে ব্যয় ধরা হয়েছে ৫২০ কোটি টাকা। এর মধ্যে গ্রান্ড ইন এইড প্রোগ্রামের আওতায় ভারত ৩০৩ কোটি রুপি ও বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন ১৫০ কোটি টাকা ব্যয় করবে। বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশনের (বিপিসি) একটি সূত্র জানায়, ১০ ইঞ্চি ব্যাসার্ধের পাইপ লাইনের তেল পরিবহন ক্ষমতা বার্ষিক ১০ লাখ মেঃ টন। আড়াই বছরের মধ্য প্রস্তাবিত ১৩০ কিঃ মিটার দীর্ঘ এ পাইপ লাইন নির্মাণ করা হবে।
২০১৬ সালের ১৯ মার্চ রেল ওয়াগনের মাধ্যমে নুমালী রিফাইনারী লিমিটেড থেকে ডিজেলের প্রথম চালান পার্বতীপুর রেলহেড ডিপোতে আনা হয়। ইতি পূর্বে সড়ক ও রেলপথে জ্বালানী তেল আমদানীতে অধিক সময় ও অর্থ ব্যয় করতে হতো। তেল পাইপ লাইনটির নির্মাণ কাজ শেষ হলে জ্বালানী তেল আমদানীতে সময় ও অর্থের সাশ্রয় হবে বলে পেট্রো বাংলার কর্মকর্তারা জানান।