(দিনাজপুর২৪.কম) ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবসে নয়া কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে রাজধানী দিল্লিতে কৃষকের ট্রাক্টর মিছিল রক্তাক্ত সংঘর্ষে রূপ নিয়েছে। পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে একজন কৃষক নিহত হয়েছেন। আজ মঙ্গলবার বিকেলে দিল্লির মিন্টো রোডে এই ঘটনা ঘটে।

ভারতের সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমস জানায়, নিহত ব্যক্তিকে ট্রাক্টরের নিচে পিষ্ট অবস্থায় দেখা যায়। তবে বিক্ষোভকারীরা দাবি করছেন পুলিশের গুলিতেই ওই কৃষকের মৃত্যু হয়েছে।

এদিন ট্রাক্টর মিছিলের আগে দিল্লির সিংঘু সীমানায় পুলিশের ব্যারিকেড ভাঙার অভিযোগ ওঠে বিক্ষোভরত কৃষকদের বিরুদ্ধে। সেই মিছিলের হাজার হাজার ট্র্যাক্টর পুলিশের ঘোষিত পথে না গিয়ে পথ পাল্টে লালকেল্লায় গিয়ে পৌঁছায়। এসময় কৃষকরা স্লোগান তোলে ‘অকুপাই দিল্লি’ এবং কৃষক আন্দোলনের পতাকা ওড়ায়।

সেখানে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ বাধে বিক্ষোভকারীদের। পুলিশ কাঁদানে গ্যাস ছুঁড়ে এবং লাঠি চার্জ চালিয়েও নিয়ন্ত্রণে আনতে পারেনি বিক্ষোভকারীদের। তিন সীমানায় সব ব্যারিকেড ভেঙে ফেলে কৃষকরা।

ভারতের সংবাদ মাধ্যম এই সময় জানায়, দিল্লির পরিস্থিতি নিয়ে জরুরি বৈঠকে বসেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। বৈঠকে যোগ দিয়েছেন দিল্লির পুলিশ কমিশনার ও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র সচিব।

প্রসঙ্গত, দফায় দফায় কৃষক ও নরেন্দ্র মোদি সরকারের মধ্যে বৈঠকের পরও ভারতের নব্য কৃষি আইন নিয়ে এই বিরোধের সৃষ্টি হয়েছে। এখন পর্যন্ত ১১ বার কৃষক নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে বসে সরকার কিন্তু কোনো সমাধান হয়নি।

সম্প্রতি সরকার দেড় বছরের জন্য এ আইন কার্যকর না করার প্রস্তাব দিলেও তাতে রাজি হয়নি কৃষকরা। কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে ভারত বন্ধ আন্দোলন পালন করেন কৃষকরা। সেই সঙ্গে ৩২টি কৃষক ইউনিয়নের প্রধানরা অনশনে বসেন। -ডেস্ক