(দিনাজপুর২৪.কম) ভারতের পাঞ্জাব রাজ্যে মন্ত্রীসভায় বিরোধী দল, এমনকি নিজ দলের মন্ত্রীদের রোষানলে পড়েছেন ভারতের সাবেক ক্রিকেটার ও রাজ্যের স্থানীয় সরকার, পর্যটন, সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী নভোজত সিং সিধু। সম্প্রতি তার পাকিস্তান সফরকে কেন্দ্র করে বিস্ফোরক মন্তব্য এবং সফরকালে খালিস্তানপন্থি আন্দোলনের নেতা গোপাল সং চাওলার সঙ্গে ছবি তোলা নিয়ে সমালোচিত হয়েছেন তিনি। সোমবার পাঞ্জাব মন্ত্রীসভায় তাকে নিয়ে আলাদা করে আলোচনা হতে পারে বলে শক্ত ইঙ্গিত দেয়া হচ্ছে। তবে এতে তিনি উপস্থিত থাকবেন কিনা তা নিশ্চিত নয়। কারণ তিনি বিভিন্ন রাজ্যে কংগ্রেসের পক্ষে নির্বাচনী প্রচারণায় ব্যস্ত রয়েছেন। এ খবর জানিয়েছে জি নিউজ অনলাইন।
সম্প্রতি কর্তারপুর করিডোর উন্মোচনের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের আমন্ত্রণে তিনি পাকিস্তানে যান। এর আগে ইমরান খান প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেয়ার সময় তিনি প্রথমবার পাকিস্তান সফরে যান। তারপর কর্তারপুর করিডোর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে দ্বিতীয়বারের মতো পাকিস্তান সফরে যান। এ জন্য ইতিমধ্যে মন্ত্রীদের নেতিবাচক প্রতিক্রিয়ার সম্মুখীন হয়েছেন তিনি। পাকিস্তান থেকে আসা আমন্ত্রণে সাড়া দেয়ার বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিংয়ের আপত্তি থাকা সত্ত্বেও সিধু কেন পাকিস্তান সফরে গেলেন, তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন অনেকে। এছাড়া খালিস্তানপন্থি আন্দোলনের নেতা গোপাল সিং চাওলার সঙ্গে সিধুর ছবি তোলা, তার প্রতি আরো অসন্তোষ যোগ করেছে। এ বিষয়ে এএনআইকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে সিধু বলেছেন, কংগ্রেস সভাপতি আমাকে পাকিস্তান যাওয়ার অনুমতি দিয়েছেন। এ ছাড়া কমপক্ষে ২০ জন কংগ্রেস নেতাও এমন অনুমতি দিয়েছেন।  কেন্দ্রীয় নেতৃত্বও একই কথা বলেছেন। রাহুল গান্ধী আমার ক্যাপ্টেন। পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী আমার পিতার মতো। আমি তাকে বলেছি যে, পাকিস্তানকে কথা দিয়েছি আমি যাবো। আর গোপাল সিং চাওলার সঙ্গে ছবি তোলা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, তিনি কে, সে বিষয়ে আমার কোনো ধারণা ছিল না। সফরকালে হাজার হাজার ছবি তোলা হয়েছে। বিরোধীরা এ নিয়ে কুৎসা রটনা করছে।
‘রাহুল গান্ধী নেতারও নেতা’- তার এই মন্তব্য নিয়ে চটেছেন পাঞ্জাবের মন্ত্রীরা। এ নিয়ে তারা অসন্তোষও প্রকাশ করেছেন এরই মধ্যে। এ নিয়ে রাজ্যের মন্ত্রী তৃপ্ত রাজিন্দর সিং বাজওয়া বলেছেন, অমরিন্দর সিংকে নেতা না মানলে, নৈতিক দিক বিবেচনায় তার মন্ত্রীপরিষদ থেকে পদত্যাগ করা উচিত। সিধুর করা মন্তব্য নিয়ে তার স্ত্রী নভোজত কর সিধু বলেছেন, সিধুর মন্তব্যকে বিকৃত করা হয়েছে। -ডেস্ক