bbs-dinajpur24(দিনাজপুর২৪.কম) কাশ্মিরে সেনাঘাটিতে সন্ত্রাসী হামলায় ১৭ ভারতীয় সেনা নিহতের ঘটনায় পাকিস্তান ও ভারতের মধ্যে উত্তেজনা তীব্র রূপ ধারণ করেছে। ভারতের পক্ষ থেকে এ হামলার জন্য পাকিস্তানকে দায়ী করা হয়েছে। অন্যদিকে, পাকিস্তান এ দায় অস্বীকার করেছে। এ পরিস্থিতিতে পাকিস্তানকে কড়া জবাবের হুমকি দেয়া হয়েছে ভারতের পক্ষ থেকে।
ভারতের লেফটেনেন্ট জেনারেল রণবির সিং নয়া দিল্লিতে সাংবাদিকদের বলেন, রোববারের হামলায় পাকিস্তানভিত্তিক জঙ্গি গোষ্ঠী জাইশ-ই-মোহাম্মদের ছাপ রয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে সংগৃহিত নমুনাগুলোতে ইঙ্গিত মিলেছে, হামলাকারীরা বিদেশি এবং তাদের অস্ত্র ও সজ্জায় পাকিস্তানের চিহ্ন রয়েছে। এক সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমাদের লোকরা উপযুক্ত জবাব দেওয়ার জন্য তৈরি হয়ে আছে। তবে এবিষয়ে তিনি আর বেশি কিছু বলেননি।
ওদিকে, আনন্দবাজার পত্রিকায় সাংবাদিক জয়ন্ত ঘোষাল লিখেছেন, ১৯৯৯ সালে কার্গিল যুদ্ধের সময় ভারতের তৎকালীন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী লালকৃষ্ণ আদবাণী ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রী জর্জ ফার্নান্ডেজ পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ‘হট পারস্যুট’-এর নীতি নিতে চেয়েছিলেন। অর্থাৎ, পাকিস্তান থেকে আসা সন্ত্রাসবাদীদের ধাওয়া করে, প্রয়োজনে সীমান্ত বা নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে জঙ্গি ঘাঁটিতে প্রত্যাঘাতের সিদ্ধান্ত নিতে চেয়েছিলেন তাঁরা। মন্ত্রিসভার নিরাপত্তা বিষয়ক কমিটি তখন এ নিয়ে আলোচনাও করেছিল। সতেরো বছর পর মোদীর নেতৃত্বে মন্ত্রিসভার নিরাপত্তা বিষয়ক কমিটির বৈঠকে আজ আবার ‘হট পারস্যুট’-এর প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা হল। এ নিয়ে কোন চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি। -ডেস্ক