(দিনাজপুর২৪.কম) চারদিন আগে পাকিস্তান ও আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ড একটি চুক্তিতে আসে। জুলাই আফগানিস্তানের কাবুলে এবং আগস্টে পাকিস্তানের লাহোরে একটি করে টি-টোয়েন্টি প্রীতি ম্যাচ খেলার কথা হয় তাদের। কিন্তু চারদিনের ব্যবধানে সে সিদ্ধান্ত বাতিল হলো। ওই প্রীতি ম্যাচ খেলবে বলে জানিয়ে দিলো আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (এসিবি)। বুধবার কাবুলে ভয়াবহ এক সন্ত্রাসী হামলা হয়। এতে নিহত হয়েছে ৮০ জন। ওই ঘটনার পরের দিন আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ড নিজেদের অফিসিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্টে প্রীতি ম্যাচ বাতিলের কথা জানালো। কাবুলে সন্ত্রাসী হামলার কারণে এটা বাতিল করা হয়েছে বলে অনেকে মনে করছেন। কিন্তু আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ড ওই ম্যাচ বাতিলের ব্যাপারে কোনো কারণ দেখায়নি। এর আগে ২০১৩ সালে একবার পাকিস্তান ও আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের মধ্যে একটি চুক্তি হয়। ক্রিকেটে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতার বিষয়টি ছিল তাতে। পাকিস্তানের লাহোরের ক্রিকেট অ্যাকাডেমি আফগানিস্তানের খেলোয়াড়রা ব্যবহার করতে পারবেন বলে তখন কথা হয়। কিন্তু পরে সে চুক্তি আলোর মুখ দেখেনি। এরপর আফগানিস্তান ঝুকে পড়ে ভারতের নয়ডার দিকে। সেখানে ভারত তাদেরকে সব সুযোগ সুবিধা দেয়। এমন কি আফগানিস্তানের স্বাগিতক ম্যাচগুলো সেখানেই হয় এখন। ভারত তাদেরকে সব সুবিধা দেয়ার পরও নতুন করে পাকিস্তানের সঙ্গে ক্রিকেটীয় সম্পর্ক স্থাপন করাকে ভালো চোখে দেখছিল না। বিষয়টি পাকিস্তানের সঙ্গে প্রীতি ম্যাচের সিদ্ধান্ত হওয়ার দিনই বুঝতে পারেন আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান আতিফ মশাল। সেদিন তিনি বলেন, ‘পাকিস্তানের সঙ্গে ক্রিকেটীয় সম্পর্ক স্থাপন মানে ভারতের সঙ্গে সম্পর্ক শেষ- এমন নয়। দুই দেশই আমাদের ভাল বন্ধু। ভারত আমাদের বন্ধু। তারা আফগানিস্তান ক্রিকেটের উন্নতির জন্য অনেক সহযোগিতা করছে। আর পাকিস্তান অনেক আগ থেকেই আমাদের অনেক সাহায্য করেছে। দুই দেশই আমাদের বন্ধু। -ডেস্ক