(দিনাজপুর২৪.কম) শিশুদের ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে পাকিস্তানে ৭ জন নিহত। শনিবার খাইবার পাখতুনে গোলাগুলিতে এই ঘটনা ঘটে। মাঠে ছোট বাচ্চাদের ক্রিকেট ম্যাচ। খেলায় ভুলবোঝাবুঝি কেন্দ্র করে সামান্য ঝামেলা। সেই ঝামেলা মেটাতে শেষ পর্যন্ত থানায় যেতে হয়। থানায় পুলিশের সামনে কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে দুপক্ষই বন্দুক বের করে একে অপরের দিকে গুলি ছুড়তে থাকে। এতে করে সাতজন মারা যায়। আর এমন ঘটনায় হতবাক পাকিস্তানের অ্যাবোটাবাদ জেলার পুলিশ প্রশাসন। অ্যাবোটাবাদ পুলিশের ডেপুটি সুপারিনটেনডেন্ট ইজাজ খান জানিয়েছেন, বাচ্চাদের ক্রিকেট ম্যাচ চলছিল। সেখানে দুই পক্ষ সামান্য ঝামেলা শুরু করে। তারপর থানায় আসে অভিযোগ দায়ের করার জন্য। পুলিশের তরফে দুপক্ষকেই বোঝানোর চেষ্টা করা হয়। কিন্তু একপক্ষ আচমকা বন্দুক বের করে গুলি করতে শুরু করে। তার পর অন্য পক্ষও গুলি ছোড়ে। থানা চত্বরেই সাতজন মারা যায়।

এমন ঘটনার পর পাকিস্তানের ক্রিকেট মাঠে নিরাপত্তা নিয়ে আরও একবার প্রশ্ন উঠেছে।

২০০৯ সালে লাহোরে শ্রীলংকান ক্রিকেটারদের বাসে সন্ত্রাসী হামলার পর পাকিস্তানে খেলতে চাইছে না কোনো দেশ। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) দেশে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফেরাতে নিজেদের সামর্থ্যের সবই করে যাচ্ছে।

আগামী বছরে পাকিস্তান সফরের জন্য অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলকে আমন্ত্রণ করেছে পিসিবি। অসিদের পাকিস্তান সফরের আগেই ছোটদের ক্রিকেট ম্যাচকে কেন্দ্র করে পাখতুনে ন্যক্কারজনক ঘটনায় দুশ্চিন্তায় পড়েছে ক্রিকেট বোর্ড। -ডেস্ক