(দিনাজপুর২৪.কম) জম্মু ও কাশ্মীরের পুলওয়ামায় পাকিস্তান আশ্রিত জঙ্গিদের আধা সেনা কনভয়ে হামলার পাল্টা হিসেবে ভারতীয় বায়ু বিমান পাল্টা আঘাত করেছে পাকিস্তানের অভ্যন্তরে থাকা জঙ্গি ঘাঁটিতে। ভারতীয় বিমান সেনা  দাবি করেছে, মঙ্গলবার ভোরে নিয়ন্ত্রণ রেখা পেরিয়ে পাক অধিকৃত কাশ্মীরে তারা জঙ্গি ঘাঁটি ধ্বংস করেছে।সংবাদ সংস্থা সূত্রে খবর, মঙ্গলবার ভোর সাড়ে ৩টা নাগাদ ১২টি মিরাজ ২০০০ যুদ্ধবিমান পাক জঙ্গি ঘাঁটি লক্ষ্য করে লেজার নিয়ন্ত্রিত ব্যবস্থার সাহায্যে প্রায় ১০০০ কেজি বোমাবর্ষণ করেছে। তবে এ হামলায় হতাহতের কথা অস্বীকার করেছে পাকিস্তান। এ ব্যাপারে তারা কিছু ছবিও প্রকাশ করেছে। দেশটির দাবি, ভারত আক্রমণ করতে চেয়েছিলো, কিন্তু পাকিস্তান সেনাবাহিনী তাদের প্রতিহত করেছে। ভারতের দাবি, ২১ মিনিটের পূর্বকল্পিত এই অপারেশনে বালাকোট সেক্টর থেকে পাক অধিকৃত কাশ্মীরের প্রায় ৮০ কিলোমিটার ভিতরে প্রবেশ ভারতীয় বিমান সেনার যুদ্ধবিমান। এর পর বালাকোট, চাকোটি এবং মুজফ্রাবাদে জইশ-ই-মহম্মদের তিনটি লঞ্চপ্যাড ধ্বংস করেছে ভারত।বিমান সেনার দাবি, তারা গুঁড়িয়ে দিয়েছে জইশের কন্ট্রোল রুম আলফা-৩। দাবি করা হয়েছে প্রায় ২০০ থেকে ৩০০ জঙ্গিকে খতম করা সম্ভব হয়েছে। তবে পাকিস্তান বিমানবাহিনী এই হামলার জবাবে মঙ্গলবার সকালে পাল্টা বিমান হামলা চালানোর চেষ্টা চালিয়েছিল বলে জানা গেছে। তবে ভারতীয় বায়ুসেনার প্রতিরোধে তারা ফিরে গিয়েছে বলে জানা গেছে। এদিকে পাকিস্তান সেনারা স্বীকার করলেও হতাহতের কথা অস্বীকার করেছে। পাক পররাষ্ট্রমন্ত্রী জরুরি বৈঠকে বসেছেন বলে জানা গেছে। পাকিস্তান আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর) বলছে, সীমান্ত রেখা লঙ্ঘন করেছে ভারতীয় বিমানবাহিনীর জঙ্গিবিমান। তবে তাৎক্ষণিকভাবে জোরালো জবাব দেয়ায় পালিয়ে গেছে। ভারতীয় বিমান বাহিনী আকাশ সীমা লঙ্ঘন করেছে বলে অভিযোগ করেছেন পাকিস্তান সেনাবাহিনীর মুখপাত্র মেজর জেনারেল আসিফ গফুর।এক টুইট বার্তায় গফুর বলেছেন, মুজাফফরাবাদ সেক্টর থেকে পাকিস্তানে অনুপ্রবেশ করেছে ভারতীয় বিমান বাহিনীর বিমান। বালাকোট সেক্টরে বোমা ফেলেছে। তবে পাক অধিকৃত কাশ্মীরে ভারতের এই হামলায় কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি বলে দাবি করেছেন তিনি।পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রী বলেছেন, দেশের মানুষের দুঃশ্চিন্তার কিছু নেই। আমরা সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে সফল লড়াই করেছি। আমরা শান্তিকামী জাতি এবং সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে সচেতন রয়েছি।অন্যদিকে পাকিস্তানে ভারতের  বিমান হানা সম্পর্কে বিভিন্ন সূত্রে বলা হয়েছে,  প্রায় ২১ মিনিট ধরে পাক অধিকৃত কাশ্মীরের আকাশে ছিল ভারতীয় বিমান সেনার যুদ্ধবিমানগুলো। ভারতীয় সেনা সূত্রের খবর, চকোটিতে বোমাবর্ষণ করা হয়েছে রাত ৩টা ৫৮ মিনিট থেকে ভোর ৪টা পর্যন্ত। মুজাফ্ফারাবাদে বোমাবর্ষণ চলে রাত ৩টা ৪৮ মিনিট থেকে ৩টা ৫৫ মিনিট পর্যন্ত। ভারতের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল প্রধানমন্ত্রীকে নরেন্দ্র মোদীকে এই সেনা অভিযান নিয়ে সবিস্তার রিপোর্ট দিয়েছেন। তারা  গোটা পরিস্থিতি নিয়ে  মন্ত্রীদের নিয়ে বৈঠক করেছেন। বিমান সেনার তরফে এখন পর্যন্ত সরকারিভাবে কোনো বিবৃতি জারি করা হয়নি। তবে এই অভিযানের পর আন্তর্জাতিক সীমান্তে  হাই অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে। এই অভিযানের পর ভারতীয় বিমান সেনাকে অভিনন্দন জানিয়ে টুইট করেছেন বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের শীর্ষ নেতারা। কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী লিখেছেন, ভারতীয় বিমান সেনার পাইলটদের সেলাম জানাই। ভারতীয় বিমান সেনার অভিযানকে কুর্নিশ জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, দিল্লি মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল প্রমুখ।
উল্লেখ্য, গত ১৪ই ফেব্রয়ারি পুলওয়ামাতে আধা সেনা সিআরপিএফের একটি কনভয়ে আত্মঘাতী জঙ্গি হামলা হয়। এই হামলায় ৪৯ জন আধা সেনা জওয়ান নিহত হয়েছিলেন। এর পরই ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জানিয়েছিলেন, প্রত্যাঘাতের সমস্ত ক্ষমতা দেয়া হয়েছে সেনাবাহিনীকে। তার পরই পুলওয়ামার ঘটনার ১২ দিনের মাথায় এই বিমান অভিযান। সুত্র:ম.জমিন