0001বাবুল আক্তার,  পাইকগাছা (দিনাজপুর২৪.কম) পাইকগাছায় দারুনমল্লিক গ্রামে প্রতিমা নামে এক সদ্য বিবাহিত মহিলার গলায় ওড়না পেচিয়ে আত্মহত্যা করেছে। হত্যা, কি আত্মহত্যা এ নিয়ে এলাকায় মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। সে দারুনমল্লিক গ্রামের প্রকাশ ঢালীর কন্যা।
জানা যায়, উপজেলার দারুনমল্লিক গ্রামে প্রকাশ ঢালীর কন্যা প্রতিমা ঢালী ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং শেষ বর্ষের ছাত্রী কিছুদিন পূর্বে একই উপজেলার দক্ষিণ কাইনমুখী গ্রামের হরেন্দ্রনাথ মন্ডলের পুত্র মহিতোষের সাথে প্রেমজ সম্পর্ক ধরে বিবাহ হয়। গত মঙ্গলবার প্রতিমা স্বামী মহিতোষকে সঙ্গে নিয়ে দারুনমল্লিক গ্রামে পিত্রালয়ে বেড়াতে আসে। বুধবার সকালে জামাই-মেয়েকে বাড়ীতে রেখে প্রতিমা মা শাড়ী বিক্রি করতে বাইরে যায়। বিকালে বাড়ী ফিরে ঘরের বাহিরে থেকে তালা দেয়া দেখে বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজি করে না পেয়ে ঘরের জানালা দিয়ে উকি মেরে দেখতে পায় কাপড় দিয়ে কি যেন ঢাকা রয়েছে। সন্দেহ হওয়ায় এলাকাবাসীকে ডেকে ঘরের দরজা ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে প্রতিমার ঝুলন্ত লাশ দেখতে পায়। এলাকাবাসী পুলিশকে খবর দিলে থানার এস,আই গৌতম মন্ডল ঘটনাস্থল থেকে প্রতিমার লাশ উদ্ধার করে সুরত হাল রিপোর্ট শেষে পোস্ট মর্টেমের জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজে হাসপাতালে পাঠিয়েছে। মৃতের মা অভিযোগ করেছে, জামাই মহিতোষ তার মেয়েকে মেরে লাশ ঝুলিয়ে রেখে বাইরে থেকে দরজায় তালা দিয়ে পালিয়ে গেছে। এ ব্যাপারে থানার ওসি মারুফ আহম্মদ জানান, লাশ ময়না তদন্তের জন্য খুমেক হাসপাতালে পাঠিয়েছি। রিপোর্ট না পাওয়া পর্যন্ত এটি হত্যা না আত্মহত্যা বলা সম্ভব হচ্ছে না। তবে নিহতের পরিবার অভিযোগ করলে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।