আকতার হোসেন বকুল (দিনাজপুর২৪.কম)  মায়ের সম্পতি মেয়েকে দলিল করে দেওয়ার অপরাধে সৎ বাবা ভাই ভাবি মিলে অসুস্থ মাকে বালিশ চাপা দিয়ে মেরে ফেলার অভিযোগে জয়পুরহাট আদালতে ৩০২/৩৪ ধারায় মামলা করেন মেয়ে শাপলা বেগম। ওই মামলার আসামিরা হলেন জেলার পাঁচবিবি উপজেলার ভীমপুর গ্রামের বাবা ইসরাইল, ভাবি হুনুপা বেগম, ভাই হুসনে সোবারক (ডলার) এবং তাদের সহযোগি জয়পুরহাট সদরের আতিয়ারুজ্জামান।

মামলা সুত্রে জানাযায়, নিহত মাসুদা বেগম জীবনদসায় গুরত্বর অসুস্থ হলে মেয়ে তাঁর সুস্থতার জন্য ঢাকায় উন্নত চিকিৎসা করেন। একটু সুস্থ্য হলে মেয়ে মাকে নিয়ে বাড়িতে আসেন এবং নিয়মিত সেবা-যত্ম করতে থাকে। এরই মধ্যে গত ২০১৯ সালের ৩রা সেপ্টম্বর মা মাসুদা তার বসতবাড়ির ২.৫ শতক সম্পতি মেয়ে শাপলাকে হেবাসুত্রে দলিল করে দেন। এতে মামলার আসামিরা ক্ষিপ্ত হয়ে মেয়ের সামনেই তার মায়ের মুখে বালিশ চাপা দেয় এতে সে অচেতন হয়ে পরে। মাকে হত্যার চেষ্ঠা করলে এমন দৃশ্য দেখে সে চিৎকার করলে তাকেও ধাক্কা দিয়ে মাটিতে ফেলে দেয় তারা। পরে গ্রাম্য ডাক্তার এসে মাসুদা বেগমকে দেখে মৃত ঘোষনা করেন। মায়ের হত্যা কারিদের আইনের আওতায় নিয়ে সঠিক ও ন্যায় বিচারের আশায় আদালতে মামলা করেন শাপলা। তিনি বলেন, মামলাটি বর্তমানে সিআইডির অধিনে তদন্ত চলছে।