(দিনাজপুর২৪.কম) পুলিশের সোর্সকে থাপ্পড় মারার জেরে বিয়ে বাড়ি থেকে তুলে থানায় নিয়ে জনি নামের এক যুবককে নির্যাতন করে হত্যার অভিযোগে দায়ের করা মামলায় পল্লবী থানার ওসিসহ ৫ জনকে অব্যাহতি দিয়েছেন আদালত। অব্যাহতি প্রাপ্তরা হলেন-পল্লবী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জিয়াউর রহমান, এসআই আবদুল বাতেন, রাশেদ, শোভন কুমার শাহা ও কনস্টেবল নজরুল। অন্যদিকে পল্লবী থানার এএসআই রাশেদুল, কামরুজ্জামান মিন্টু, পুলিশের সোর্স সুমন ও রাশেদ পলাতক থাকায় তাদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে আদালত। গতকাল সোমবার ঢাকার জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ আদালতে আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আমলে নেয়ার জন্য দিন ধার্য ছিল। কারাগারে থাকা আসামি এসআই জাহিদকে কারাগার থেকে আদালতে হাজির করা হয়।

 সংশ্লিষ্ট বিচারক মো. কামরুল হোসেন মোল্লা আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আমলে নিয়ে পলাতকদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন। একইসঙ্গে পরোয়ানা তামিল সংক্রান্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আগামি ১৩ আগস্ট দিন ধার্য করেন।
 অতিরিক্ত পিপি তাপস কুমার বলেন, মামলাটিতে পল্লবী থানার ওসি জিয়াউর রহমানসহ আটজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়। কিন্তু বিচার বিভাগীয় তদন্তে এসআই জাহিদসহ পরোয়ানাপ্রাপ্ত অন্য ৪ জন অভিযুক্ত হয়। এদের মধ্যে তদন্তে ঘটনার সাথে সম্পৃক্ত থাকার তথ্য পাওয়ায় এসআই কামরুজ্জামানকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। তার নাম এজাহারে ছিল না।(ডেস্ক)