(দিনাজপুর২৪.কম) ইরানের পরমাণু কর্মসূচী নিয়ে বিশ্বের শক্তিমান দেশগুলোর সাথে অবশেষে একটি চুক্তি হওয়ায় এবং এর ফলে ইরানের উপর অর্থনৈতিক অবরোধ উঠে যাবার সম্ভাবনা তৈরি হওয়ায় তেহরানের মানুষ রাস্তায় নেমে এসে উল্লাস প্রকাশ করেছে। অবশ্য এ জন্য ইরানের পরমাণু কর্মসূচির উপর কঠোর বিধিনিষেধ আরোপিত হবে। ইরান এবং যুক্তরাষ্ট্র দুজনেই এই চুক্তিকে ঐতিহাসিক সুযোগ হিসেবে বর্ণনা করেছে।
মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা বলেছেন, এই চুক্তির ফলে নিশ্চিত হল যে ইরান আর পরমাণু অস্ত্র তৈরি করতে পারছে না। তবে চুক্তিটির কঠোর সমালোচনা করেছেন প্রেসিডেন্ট ওবামার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ রিপাবলিকান নেতারা।
মার্কিন কংগ্রেসে এই চুক্তি অনুমোদিত হবার জন্য ষাট দিন সময় রয়েছে। তবে রিপাবলিকান অধ্যুষিত কংগ্রেস ইরানের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের প্রস্তাব নাকচ করে দিতে পারে, যদিও তা ঠেকাতে প্রেসিডেন্ট ওবামা তার ভিটো ক্ষমতা প্রয়োগ করবেন বলে জানিয়েছেন। রাগত প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছে ইসরায়েলের কর্তৃপক্ষও।
এটাকে একটা চমকে দেয়ার মতো ভুল উল্লেখ করে ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেনইয়ামেন নেতানিয়াহু বলেছেন, এটা পৃথিবীকে আরও বিপজ্জনক জায়গায় পরিণত করবে। সূত্র : বিবিসি বাংলা।