(দিনাজপুর২৪.কম) আবারো নতুন খবর দিলেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত চিত্রনায়িকা পপি। অনেকদিন ধরেই তিনি বলে আসছেন ভিন্ন ধরনের গল্পের ছবিতে কাজ করতে চান। তবে সেরকম পছন্দমতো কাজের অভাবে ক্যামেরার সামনে দাঁড়াতে পারছেন না। অবশেষে জানা গেল ভিন্ন একটি গল্পের ছবিতে কাজের জন্য ‘হ্যাঁ’ বলেছেন তিনি। ছবির নাম চূড়ান্ত না হলেও মানবজমিনকে নতুন এক ছবির খবর দিলেন তিনি। এ প্রসঙ্গে গতকাল পপি বলেন, আমি সবসময়ই চ্যালেঞ্জিং ছবিতে কাজ করতে চেয়েছি।

অনেকদিন ধরেই তো এই অঙ্গনে কাজ করছি। এবার আমাকে পরিচালক সাদেক সিদ্দিকীর নাম চূড়ান্ত না হওয়া একটি ছবিতে কাজ করতে দেখবেন দর্শক। চলতি মাসেই এ ছবির মহরত হবে। আগামীকাল হবে গানের রেকর্ডিং। এ ছবির কাহিনী বা চরিত্র নিয়ে এখনই কিছু বলতে চাই না। তবে এটুকু বলব ছবিতে অনেক অ্যাকশন থাকছে। আর অনেকদিন পর দর্শক আমাকে অ্যাকশন ছবিতে খুঁজে পাবেন। ছবিতে তার বিপরীতে কে অভিনয় করবেন জানতে চাইলে পপি একটু হেসে বলেন, এটাও একটা চমক। কে থাকবে আমার বিপরীতে সেটাও ছবির মহরতে জানাতে চাই। তার বিপরীতে এখানকার না হলেও কলকাতার কোনো হিরো থাকতে পারে এমনই আভাস দিয়েছেন তিনি। তবে সেটা এখনই জানাতে চান না পপি। এখন এ অভিনেত্রীর সময়টা বেশ ভালোই যাচ্ছে। বছর শেষ হতে না হতেই ‘যুদ্ধ শিশু’ এবং ‘টার্ন’ নামের দুটি ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হন তিনি। শহীদুল হক খানের পরিচালনায় সেই ছবি দুটির কাজও শিগগিরই শুরু হবে বলে জানিয়েছেন। সবশেষ পপিকে দর্শক সিনেমা পর্দায় গত বছর ‘সোনাবন্ধু’ ছবিতে দেখেছেন। এটি পরিচালনা করেন জাহাঙ্গীর আলম সুমন। ছবিটি মুক্তির পর বেশ সাড়াও পেয়েছেন পপি। পপি বলেন, ভালো কাজের সঙ্গে আমি থাকতে চাই। আর ইন্ডাস্ট্রিকে সচল রাখতে হলে প্রচুর ভালো ছবি দরকার। আমার বিশ্বাস, সামনে ইন্ডাস্ট্রি আবারো আগের মতো ঘুরে দাঁড়াবে। দর্শক এখনো
ভালো ছবি সিনেমা হলে দেখতে যেতে চায়। উল্লেখ্য, ১৯৯৭ সালে ‘কুলি’ ছবিতে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে রূপালী পর্দায় কাজ শুরু করেন পপি। এ পর্যন্ত ‘কারাগার’ (২০০৩), ‘মেঘের কোলে রোদ’ (২০০৮) ও ‘গঙ্গাযাত্রা’ (২০০৯)-তিন ছবিতে অভিনয়ের জন্য শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন তিনি। -ডেস্ক